আর্কাইভ

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বন্ধ দুটি ইরি-বোরো ব্লক চালু

দিয়েছিলো বরিশালের গৌরনদী উপজেলার চর দিয়াশুর ও চররমজানপুর এলাকার দুটি ইরি-বোরো ব্লক। এতে ওই ব্লক দুটির কয়েক’শ একর জমি অনাবাদী থাকার আশংকা দেখা দেয়। দিশেহারা পরেন ব্লকের আওতাভুক্ত প্রায় দু’শতাধিক কৃষক পরিবার। অবশেষে ১০দিন পর খবর পেয়ে গতকাল সোমবার বিকেলে গৌরনদী পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র মোঃ হারিছুর রহমান হারিছ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোঃ নুরুল ইসলাম-পিপিএম ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রতন কুমার মন্ডল ঘটনস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় তারা সরেজমিনে উপস্থিত থেকে লাঠিয়াল বাহিনী কর্তৃক বন্ধ করে দেয়া ইরি-বোরো ব্লক দুটির পানি সেচের উদ্বোধন করেন। লাঠিয়াল বাহিনী কর্তৃক বন্ধ করে দেয়া ব্লক পূর্ণরায় প্রসাশনের হস্তক্ষেপে চালু হওয়ায় ওই এলাকার কৃষক পরিবারের মধ্যে এখন আনন্দের বন্যা বইছে। 

সূত্রমতে, গত ৮ জানুয়ারি সকালে কালকিনি উপজেলার চরপালরদী গ্রামের লাঠিয়াল বাহিনীর নেতৃত্বদানকারী সিরাজ ঘরামী, সাইলু মোল্লা ও লিটন মোল্লার নেতৃত্বে তাদের ভাড়াটিয়া প্রায় দু’শতাধিক লোকজনে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ট্রালারযোগে এসে গৌরনদীর চরদিয়াশুর ও চররমজানপুর গ্রামের দুটি ইরি-বোরো ব্লকের জমি দখল করার জন্য ব্লকের নির্মানাধীন ড্রেন ভেঙ্গে ফেলে। এছাড়াও তারা ঘন্টাকালব্যাপী সশস্ত্র মহড়া দিয়ে ব্লক বন্ধের জন্য কৃষকদের হুমকি দিয়ে এলাকায় আতংকের সৃষ্টি করে। লাঠিয়াল বাহিনীর হুমকির মুখে ওই ব্লক দুটি বন্ধ হয়ে যায়।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »