আর্কাইভ

গৌরনদীতে এক পৌর কাউন্সিলরকে লাঞ্চিত

এক যুবককে মারধর করেছে পৌর কাউন্সিলর নুর আলম সিকদার। এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে সোহেলের আত্মীয়-স্বজনেরা শুক্রবার দুপুরে বরিশালের গৌরনদী পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও দক্ষিন পালরদী মহল্লার বাসিন্দা নুর আলম সিকদারকে (৪০) লাঞ্চিত করেছে।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, ছিনতাইকারী অপবাদ দিয়ে বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে দক্ষিন পালরদী মহল্লার সোহেল হাওলাদারকে (১৮) তাদের বাড়ি থেকে ধরে রাস্তায় এনে মারধর করে স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর নুর আলম সিকদার। গতকাল শুক্রবার সকালে এ ঘটনা জানাজানি হলে ছিনতাইকারী অপবাদ দেয়ায় ও মারধর করার প্রতিবাদে সোহেলের আত্মীয় স্বজনরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। একপর্যায়ে শুক্রবার বেলা ১১ টার দিকে দক্ষিন পালরদী এলাকায় জালালের চায়ের দোকানে সম্মুখে বসে পৌর কাউন্সিলর নুর আলমকে লাঞ্চিত করে সোহেলের আত্মীয়-স্বজনেরা। স্থানীয়রা জানায়, সোহেলের অর্ধশতাধিক আত্মীয়-স্বজনেরা লাঠিসোঁটা ও ঝাঁড়– নিয়ে পৌর কাউন্সিলর নুর আলমের ওপর চড়াও হয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এ সময় ওইখানে উপস্থিত ছিলেন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর সৈয়দা কামরুন নাহার মায়া। বিক্ষুব্ধরা তার (মায়ার) উপস্থিতিতেই কাউন্সিলর নুর আলমকে লাঞ্চিত করে দোকানে অবরুদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে পৌর মেয়র মোঃ হারিছুর রহমান হারিছ তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

পৌর কাউন্সিলর নুর আলম শিকদারকে লাঞ্চিতর অভিযোগ অস্বীকার করেন। পৌর মেয়র মোঃ হারিছুর রহমান হারিছ জানান, পৌর কাউন্সিলরের সাথে স্থানীয় কতিপয় ব্যক্তিদের ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল, তাৎক্ষনিক ভাবে তা মীমাংসা করে দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button