আর্কাইভ

গৌরনদীর দিনমজুর কৃষকেরা গ্রেফতার আতংকে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন

নাসির উদ্দিন আকন কর্তৃক দিনমজুর ও কৃষকসহ ৫ জনের নাম ও ছবি ব্যবহার করে ঋণ উত্তোলন করে নিজেই তা আত্মসাত করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ব্যাংক ঋণের পাওনা টাকা পরিশোধ না করায় ঋণ খেলাপীর অভিযোগে ওইসব দিনমজুর ও কৃষকদের নামে সার্টিফিকেট মামলা দায়ের করা হয়েছে। ফলে গ্রেফতার আতংকে এখন ওইসব দিনমজুর ও কৃষকেরা পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।
বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, ২০০৪ সনে অগ্রনী ব্যাংক গৌরনদী শাখার ঋণ অফিসার মোঃ নাসির উদ্দিন আকন গৌরনদী উপজেলার গোবর্দ্ধন গ্রামের মৃত আছির উদ্দিন হাওলাদারের পুত্র হোসেন আলী, দক্ষিন গোবর্দ্ধন গ্রামের আবুল মোল্ল¬ার পুত্র নুর মহাম্মদ, মৃত কদম আলী খানের পুত্র আকবর আলী, কালকিনি উপজেলার রমজানপুর গ্রামের মোঃ সেলিম ও শাওড়া গ্রামের মোঃ ইব্রাহিম সিকদারের নাম ও ছবি ব্যবহার করে ৯৬ হাজার টাকা কৃষি ঋণ উত্তোলন করে আত্মসাত করেন।
দিনমজুর হোসেন আলী জানান, সম্প্রতি গৌরনদী অগ্রনী ব্যাংকের নোটিশ পাওয়ার পর জানতে পারেন তার নামে ২০০৪ সনে ২০ হাজার টাকা ঋণ উত্তোলন করা হয়েছে। ইব্রাহিম সিকদার জানান, তার নামেও ২০ হাজার ঋণ উত্তোলন করেন ব্যাংক অফিসার নাসির উদ্দিন আকন। বিষয়টি তিনি জানতে পাবার পর নাসিরের ওপর চাপ সৃষ্টি করলে ওই ঋণের টাকা নাসির শোধ করে দিয়েছেন। আকবর আলী অভিযোগ করেন, নাসির উদ্দিন তার নামে ২০ হাজার টাকা উত্তোলন করে নিয়ে আত্মসাত করেন। নোটিশ পাওয়ার পর তিনি বিষয়টি জানতে পারেন। একপর্যায়ে তিনি নাসিরকে টাকা পরিশোধ করতে বললে নাসির টাকা পরিশোধ না করে তাকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে হুমকি দেয়। ভূক্তভোগী কেউ নোটিশ আর কেউ সার্টিফিকেট মামলা দায়ের করার পরেই জানতে পারেন তাদের নামে ঋণ উত্তোলন করা হয়েছে। বর্তমানে পুলিশের গ্রেফতার আতংকে ওইসব দিনমজুর ও কৃষকেরা পলিয়ে বেড়াচ্ছেন। ভুক্তভোগীরা আরো অভিযোগ করেন, উক্ত ব্যাংক থেকে এর পূর্বে তারা ঋণ উত্তোলন করেছিলেন। ঋণ পরিশোধের পর তাদের ছবিসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ব্যাংকে জমা রাখা হয়েছিলো।

অভিযোগের ব্যাপারে অগ্রনী ব্যাংক শেখেরহাট শাখায় বর্তমানে কর্মরত, তৎকালীন গৌরনদী অগ্রনী ব্যাংকের ঋণ অফিসার মোঃ নাসির উদ্দিন আকনের কাছে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করলেও এক পর্যায়ে, কৃষক মোঃ হোসেন ও আকবর আলীর অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ওই সময় আমি একটি বিপদে ছিলাম টাকার প্রয়োজন হওয়ায় এ কাজ করেছি। তবে মিথ্যা জালিয়াতির আশ্রয় নেইনি। এ ব্যাপারে অগ্রনী ব্যাংকের গৌরনদীর শাখা ব্যবস্থাপক মোঃ মাহাবুব আলম খেলাপীদের বিরুদ্ধে সার্টিফিকেট মামলা দায়েরের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, উল্লেখিত বিষয়য়ে আমি কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন

Back to top button