আর্কাইভ

দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ

প্রকল্পের আওতায় বরিশালের গৌরনদী উপজেলার মাহিলাড়া থেকে কেবলারভিটা পর্যন্ত রাস্তা নির্মান কাজে ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অতিসম্প্রতি স্থানীয়দের পক্ষে অভিযোগ দায়ের করেন এইচ.এম ইসাহাক আলী।

ইউএনও’র কাছে অভিযোগ দায়ের করায় প্রকল্প সভাপতি কর্তৃক অভিযোগকারীকে অভিযোগ প্রত্যাহারের জন্য বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এইচ.এম ইসাহাক আলীসহ স্থানীয় একাধিক ব্যক্তির দেয়া অভিযোগে জানা গেছে, মাহিলাড়ার কুব্বত আলী সরদারের বাড়ির ব্রিজ হইতে গুয়া বাড়ি হয়ে কেবলারভিটা পর্যন্ত জনগুরুতপূর্ণ রাস্তা নির্মানের জন্য কাবিটা প্রকল্পের মাধ্যমে ৫ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা হয়। ওই প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য দায়িত্ব দেয়া হয় মাহিলাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আবুল কালাম মৃধাকে। প্রকল্প সভাপতি কালাম মৃধা ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়মের মাধ্যমে রাস্তা নির্মান ও সংস্কারের কাজ সম্পন্ন করেন। অভিযোগে আরো জানা গেছে, রাস্তা নির্মানের জন্য প্রকল্প সভাপতি কালাম মৃধা মাত্র ৩ জন শ্রমিক দিয়ে রাস্তার উঁচুস্থানের মাটি কেটে নিচু স্থান ঠিক করেছেন। একপর্যায়ে প্রকল্প সভাপতি কালাম মৃধা সমান্তরাল ও পরিস্কার করার জন্য ৫ লক্ষ টাকা বরাদ্দের রাস্তাটি মাত্র ১ লক্ষ টাকায় দত্তেরাবাদ গ্রামের লাল মিয়াকে চুক্তিতে দেন। বাকি টাকা প্রকল্প সভাপতি আত্মসাত করেন।

ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়মের প্রতিবাদে প্রকল্প সভাপতি আবুল কালাম মৃধার বিরুদ্ধে এলাকাবাসির পক্ষে অতিসম্প্রতি এইচ.এম ইসাহাক আলী জেলা ত্রাণ ও পূর্ণবাসন কর্মকর্তা, জেলা দুর্নীতি দমন কমিশন, গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আবেদন করেছেন।

এ খবর জানতে পেরে বৃহস্পতিবার বিকেলে ডিএসবি বাজার সংলগ্নস্থানে বসে প্রকল্প সভাপতি ও আওয়ামীলীগ নেতা আবুল কালাম মৃধা ও তার লোকজনে আবেদন প্রত্যাহারের জন্য এইচ.এম ইসাহাক আলীকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকি দেন।

এ ব্যাপারে মাহিলাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলুর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আবুল কালাম মৃধা ও তার লোকজন কর্তৃক আবেদন প্রত্যাহারের জন্য এইচ.এম ইসাহাক আলীকে ভয়ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকির ব্যাপারে এইচ.এম ইসাহাক আলী আমার কাছেও মৌখিখ ভাবে অভিযোগ করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »