আর্কাইভ

ভোলার চরফ্যাশনে গৃহ পরিচারিকাকে ধর্র্ষন শেষে আ’লীগ নেতার পলায়ন

ভোলা প্রতিনিধি ॥ চরফ্যাশন উপজেলার ঢালচর ইউপি আ’লীগের সাবেক সভাপতি কালাম বেপারী কর্তৃক গৃহ পরিচারিকাকে ধর্ষনের ঘটনা ঘটেছে। ধর্ষিতা গৃহ পরিচারিকা ঘটনার বিচার চেয়ে ঢালচর ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। চেয়ারম্যান এ ঘটনার বিচার করতে ইউনিয়নের ৫ মেম্বারের সমন্বয়ে বিচার শালিসের আয়োজন করলে ধর্ষক কালাম বেপারী গ্রাম থেকে পালিয়ে যায়। চরফ্যাশন শহরে গিয়ে ধর্ষন ঘটনা থেকে পার পেতে ঢালচর এলাকার বাসিন্দা সাইফুল ইসলামের পুত্র মাকসুদুর রহমান (১৮) কে আসামী করে স্থানীয় থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় ধর্ষিতার বাবাকে বাদী করানো হয়। এ ঘটনাটিকে নিয়ে চরফ্যাশনে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

ধর্ষিতার বাবা আব্দুল খালেক জানিয়েছেন, তাকে হুমকি দিয়ে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়ার পর আ’লীগ নেতা কালাম বেপারী চরফ্যাশন থানায় মাকসুদুর রহমান ওরফে আক্কাসকে আসামী করে তার মেয়েকে ধর্ষন করা হয়েছে মর্মে একটি মামলা দায়ের করান। তিনি বলেন, বিগত ৪ মাস পুর্বে তার মেয়েকে কালাম বেপারীর বাসায় গৃহ পরিচারিকা হিসেবে কাজে দেয়া হয়। এরইমধ্যে উক্ত কালাম বেপারী তার মেয়েকে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে জোরপুর্বক ধর্ষন করে।

ওই এলাকার প্রাক্তন মেম্বার অলি হাওলাদার জানান, চেয়ারম্যানের নির্দেশে স্থানীয় গন্যমান্যরা ধর্ষন ঘটনার শালিসি করতে গত সপ্তাহে তারিখ নির্ধারণ করলে উক্ত তারিখের দিন ধর্ষক কালাম বেপারী পালিয়ে যায়। ফলে ঘটনাটির কোন সমাধান হয়নি।

ঢালচর ইউপি সচিব মোকাম্মেল হক জানিয়েছেন, আ’লীগ নেতা কালাম বেপারী-ই ধর্ষনের ঘটনা ঘটিয়েছে। ধর্ষিতা গৃহ পরিচারিকা অভিযোগ করেছেন, ধর্ষক কালাম বেপারী তাকে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছেন। মাকসুদুর রহমান আক্কাস তাকে ধর্ষন করেছে এ কথা না বললে ধর্ষিতাকে মেরে ফেলা হবে বলেও হুমকি দেয়া হচ্ছে।

এ ব্যাপারে চরফ্যাশন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ রেজাউল করিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে মামলার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, আসলে কে ধর্ষক তা এখনও উদঘাটন করা সম্ভব হয়নি। ধর্ষিতার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, তাদেরকে ধর্ষক কালাম বেপারী প্রতিনিয়ত হুমকি প্রদান করায় তারা এখন চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »