আর্কাইভ

আগৈলঝাড়ায় প্রতিপক্ষকে হয়রানী করতে নাটকীয় মামলা দায়ের

আগৈলঝাড়া প্রতিনিধি ॥ প্রতিপক্ষকে দমতে উঠে পরে লেগেছে আগৈলঝাড়ার একটি গ্রামের প্রভাবশালী ও মামলাবাজরা। নাটকীয় কায়দায় চুরি, ছিনতাই, ভাংচুর, মারধরের অভিযোগ এনে একাধিক মামলা দায়ের।

প্রশাসন ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানাগেছে উপজেলার রাজিহার ইউনিনের বাহাদুরপুর মধ্যপাড়া সার্বজনীন দূর্গা মন্দিরে আসন্ন পূজার আয়োজনকে কেন্দ্র করে গত ২৪ আগষ্ট  মন্দির প্রাঙ্গনে প্রাক প্রস্তুতি  বৈঠকে  গ্রামের বেশীরভাগ লোক সর্বসম্মত সিদ্ধান্তে একমত প্রশন করলেও ঐ গ্রামের প্রভাবশালী শ্যামল ঘটক, স্বপন ঘটক দ্বিমত দেওয়ায় উভয় পক্ষের মধ্যে কথার কাটাকাটিতে ঐ সময় শ্যামল ও স্বপন ঘটকের অনুসারীরা বৈঠকে আগত মহিলা সহ ১০জনকে পিটিয়ে আহত ও মন্দির ও প্রতিমা ভাংচুর করে। এ ঘটনায় নৃপেন রায় বাদী হয়ে শ্যামল গংদের বিরুদ্ধে ২৬ আগষ্ট থানায় মামলা দায়ের করেন। গ্রামাসীকে শায়েস্তা করতে নেপথ্যে থাকা  শ্যামল ও স্বপন ঘটকের নির্দেশে গত ১২ই সেপ্টেম্বর শুকলাল ঘটককে বাদী করিয়ে ৮ গ্রাম বাসীর বিরুদ্ধে চুরি, ছিনতাই, মারধর, ভাংচুর ইত্যাদি অভিযোগ এনে আদালতে মামলা এমপি নং -৬৭ দায়ের করে। আদালতে মামলা শুনানীর নির্ধারিত তারিখে বাদী শুকলাল ঘটক উপস্থিত না হওয়ায় তার দায়ের করা মামলা দেউলীয়া হলে, পুনরায়  ঐ মামলা চাঙ্গা করতে  আদালতে শুকলাল ঘটক আবেদন করেন বলে সূত্রে জানাযায়।

এ বিষয়ে ঐ গ্রামের নাগরিক উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান (মহিলা) শেফালী রানী সরকার জানান আসন্ন দূর্গা পূজায় মধ্যপাড়া সার্বজনীন মন্দিরে গ্রামবাসীর সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে  কয়েক প্রভাবশালী ব্যাক্তি  ও তার অনুসারীরা নিরীহ নারী-পূরুষকে মারধর ও মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুরের ঘটনা ঘটায়। শুকলাল ঘটকের দায়ের করা মামলার বিষয়ে বলেন এ ধরনের কোন ঘটনা তার জানানেই।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »