আর্কাইভ

গৌরনদীতে যুবদলের ২ গ্রুপের সমর্থকদের মাঝে হাতাহাতি

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ যুবদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি এডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালকে অভিনন্দন জানিয়ে টাঙ্গানো ব্যানার টাঙ্গানোকে কেন্দ্র করে আজ শুক্রবার দুপুরে যুবদলের দু’গ্রুপের মধ্যে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে কমপক্ষে ৫ জন যুবদল নেতা আহত হয়েছে। এ সময় উভয়গ্রুপের মধ্যে চরম উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। ঘটনাটি ঘটেছে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার টরকী বন্দর বাসষ্ট্যান্ডে।
 
গৌরনদী উপজেলা যুবদলের নবগঠিত কমিটির সভাপতি সফিকুর রহমান শরীফ স্বপন জানান, যুবদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি এডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল-এর বরিশালে আগমন উপলক্ষে আজ শুক্রবার সকালে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ড, টরকী বাসষ্ট্যান্ড, বার্থী বাসষ্ট্যান্ডসহ একাধিকস্থানে ব্যানার টাঙ্গানো হয়। ব্যানার টাঙ্গানোর পর (ওইদিন দুপুরে) টরকী বাসষ্ট্যান্ডে যুবদলের বিদ্রোহী গ্রুপের আহবায়ক মাসুদ হাসান মিটুর সমর্থক খলিল মোল্লা, ফারুক সরদার, সামচু সরদার ও মানিক মৃধাসহ ১০/১৫ জন যুবদল কর্মীরা টাঙ্গানো ব্যানার ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ সময় তার সমর্থকেরা বাঁধা দিলে উভয়ের মধ্যে হাতাহাতি হয়। এ ঘটনার জেরধরে মিটুর সমর্থকেরা হামলা চালিয়ে উপজেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মনির সরদার, বার্থী ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি সরোয়ার ফকির, যুবদল নেতা দেলোয়ার হোসেনসহ ৫ জনকে আহত করে। হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা যুবদলের বিদ্রোহী গ্র“পের আহবায়ক মাসুদ হাসান মিটু বলেন, বির্তকিত কমিটির পক্ষ থেকে ব্যানার টাঙ্গানো হয়েছে বিধায় তা খুলে ফেলা হয়েছে।

গৌরনদী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, টরকী বন্দর বাসষ্ট্যান্ডে ব্যানারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্ত্রিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এ প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় যুবদলের সভাপতি এডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, জরুরি কাজের জন্য আজ শুক্রবার বিকেলে বরিশালে এসেছিলাম। গৌরনদীতে কি হয়েছে তা আমার জানা নেই।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »