আর্কাইভ

ঝালকাঠিতে বিএনপি’র রাজনীতিতে লাইমলাইটে খন্দকার বাদল

আহমেদ জালাল, বরিশাল ॥ জাতীয়তাবাদী দলের(বিএনপি) রাজনীতিতে আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথের লড়াকু সৈনিকের ভূমিকায় আলোচিত খন্দকার অহিদুল ইসলাম বাদল। ছাত্রজীবন থেকে তার রাজনীতির রয়েছে উজ্জ্বল কর্মযজ্ঞ। ঝালকাঠি-নলছিটির নানা উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে ভূমিকা রেখে চলছেন। শিক্ষা ও সমাজ সেবায় বেশ অবদান রাখছেন। ডায়ানা পদক ও শের-ই-বাংলা পদকেও ভূষিত হয়েছেন তিনি।

খন্দকার অহিদুল ইসলাম বাদল সম্প্রতি জাতীয়তাবাদী বাস্তুহারা দলের সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। এজন্য গর্বিত ঝালকাঠি-নলছিটি বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠন। তাকে অভিনন্দন জানিয়ে বিবৃত্তি দিয়েছেন বিভিন্ন মহল। অভিনন্দন জানিয়েছেন ঝালকাঠি জেলা ছাত্রদলের আহবায়ক সরদার সাফায়েত হোসেন । কমিটি ঘোষনার পর জাতীয়বাদী দলের প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজার জিয়ারত করেন সংগঠনের নব-নির্বাচিত নেতৃবৃন্দ। সঙ্গে ছিলেন বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফকরুল ইসলামসহ বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

১৯৮৫ সালে বাকেরগঞ্জ থানা ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন খন্দকার অহিদুল ইসলাম বাদল। তিনি ছাত্রদলের রাজনীতিতে সাংগঠনিক কর্মকান্ডে সুনাম কুড়াতে সক্ষম হন। সেখান থেকে বিএনপি’র রাজনীতে সম্পূক্ত হন। তিনি নলছিটি উপজেলা বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক। ঝালকাঠি জেলা বিএনপি’র প্রস্তাবিত যুগ্ন সাধারন সম্পাদক। নলছিটি’র দপদপিয়া ইউনিয়নের দু’বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন খন্দকার বাদল। জনমনের জনপ্রিয় চেয়ারম্যান। দপদপিয়াসহ গোটা নলছিটিতে শিক্ষা ও সেবা মূলক কর্মকান্ডে আলোচনার শীর্ষে অবস্থান করছেন খন্দকার বাদল। নিজ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা করেছেন দপদপিয়া ইউনিয়ন ডিগ্রি কলেজ,গোহালকাঠি নিন্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও বেগম আছিয়া খাতুন কিন্ডার গার্টেন। শিক্ষা ও সমাজ সেবামূলক কর্মকান্ডে বেশ ভূমিকা রাখায় ২০০৭ সালে ডায়না স্বর্ন পদকে ভূষিত হন বিএনপি নেতা খন্দকার অহিদুল ইসলাম বাদল। এছাড়া ২০০৮ সালে শের-ই-বাংলা পদকে ভূষিত হন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »