আর্কাইভ

গৌরনদীতে চাঁদার দাবিতে মাদ্রাসা সুপারের ওপর হামলার অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ চাঁদার দাবিতে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাটাজোর ইউনিয়নের লক্ষণকাঠী দারুস্ সুন্নুাহ্ দাখিল মাদ্রাসার সুপারিনটেনডেন্টের ওপর আজ মঙ্গলবার দুপুরে হামলা চালিয়ে আহত করেছে স্থানীয় প্রভাবশালী বিএনপির ক্যাডাররা। এ ঘটনায় তাৎক্ষনিক মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে হামলাকারীদের বিচার না হওয়া পর্যন্ত আগামীকাল বুধবার থেকে অনিদৃষ্টকালের জন্য ক্লাশ বর্জনের ঘোষনা দিয়েছে। হামলার ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

হামলায় আহত সুপারিনটেনডেন্ট মাওলানা মোঃ আলাউদ্দিন অভিযোগ করেন, সম্প্রতি মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভায় বর্তমান দাখিল মাদ্রাসার সম্মুখে একটি হাফেজিয়া মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠিত করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। সেমতে ওই সভায় একটি রেজুলেশনও করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর বারোটার দিকে (মাদ্রাসায় ক্লাশ চলাকালীন সময়) স্থানীয় প্রভাবশালী বিএনপি ক্যাডার দাদন মিয়া ও তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী রুবেল বেপারী, মিজান সরদার মাদ্রাসায় উপস্থিত হয়ে হাফেজিয়া মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠিত করার পূর্বে সুপারের কাছে একলক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে দাদন মিয়া ও তার সহযোগীরা মাদ্রাসার সম্মুখে বসে সুপার আলাউদ্দিনের ওপর হামলা চালিয়ে আহত করে। মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা হামলাকারীদের ধাওয়া করলে তারা দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনার প্রতিবাদে তাৎক্ষনিক শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে হামলাকারীদের বিচার না হওয়া পর্যন্ত আজ বুধবার থেকে অনিদৃষ্টকালের জন্য ক্লাশ বর্জনের ঘোষনা দেন।

হামলার ঘটনায় আজ বিকেলে সুপারিনটেনডেন্ট মাওলানা মোঃ আলাউদ্দিন বাদি হয়ে গৌরনদী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

চাঁদার দাবিতে সুপারের ওপর হামলা ও অনিদৃষ্টকালের জন্য ক্লাশ বর্জনের ঘোষনার সত্যতা স্বীকার করে মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ বেলায়েত হোসেন মোবাইল ফোনে এ প্রতিনিধিকে বলেন, পারিবারিক কাজে আমি বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছি। বিভিন্ন সূত্রে হামলার খবর পেয়ে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আমি সুপারকে থানায় মামলা দায়ের করতে পরামর্শ দিয়েছি। আগামি দু’একদিনের মধ্যে আমি দেশে ফিরে ম্যানেজিং কমিটির অন্যান্য সদস্যদের নিয়ে জরুরি সভা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহন করবো।
 
হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে দাদন মিয়া বলেন, অন্য একটি বিষয় নিয়ে সুপারের সাথে আমাদের বাকবিতন্ডা হয়েছে। সেই ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য বিক্ষোভ প্রদর্শন ও ক্লাশ বর্জনের নাটক করা হচ্ছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

আরও পড়ুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »