আর্কাইভ

ঝালকাঠিতে জ্বালানি তেল ও গ্যাস সংকট

আহমেদ আবু জাফর, ঝালকাঠি ॥ ঝালকাঠি জেলায় কোথাও মিলছেনা সরকার নির্ধারিত মূল্যে পেট্টোলসহ জ্বালানী তেল। ডিজেল ও কেরোসিনের সংকটও রয়েছে। এর মধ্যে বেশী সমস্যায় ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল ও মাইক্রোবাস চালকরা। বিপাকে পড়েছে পেট্টোলচালিত গাড়ির মালিকরা। জেলায় মেঘনা কোম্পানীর দ’ুটি ষ্টেশন রয়েছে। এর মধ্যে সদরে একটি ও রাজাপুরে একটি পাম্প রয়েছে।

ঝালকাঠিতে মেঘনা ও পদ্মার দুটি ডিপো রয়েছে। কিন্তু জেলার ২টি পাম্প ষ্টেশনেই জ্বালানী সরবরাহ করে মেঘনা। আর পদ্মা অনান্য জেলা ও তেলের জাহাজকে সরবরাহ করে থাকে।

ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালক রমিজ জানান, গত বৃহস্পতিবার থেকেই পাম্প থেকে তেল পাওয়া যাচ্ছেনা। তেল না পাওয়ার কারনে তার মোটর সাইকেল চালানো বন্ধ রয়েছে। একই কথা বললেন রাজাপুরের কালাম, মঠবাড়ি গ্রামের আবু হানিফ, রাজিব, কাঠাঁলিয়ার তোফাজ্জেলসহ অনেকেই। জানাগেছে, জেলায় প্রায় ৫’শত লোক ভাড়ায় প্রায় মোটর ও মাইক্রোবাস চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে থকে। পেট্টোল সংকটে অনেকেই  বিপদে আছে।

এ ব্যাপারে জেলা বাস ও মিনিবাস শ্রমিক সমিতির সাধারন সম্পাদক বাহাদুর মিয়া ও ঝালকাঠি রেন্ট এ কার চালক সমিতির সাধারন সম্পাদক আঃ হানিফ পেট্টোলের সংকটের কথা স্বীকার করে জানান, পেট্টোল না থাকায় ডিজেল চালিত গাড়ি চলছে। এ ব্যাপারে মেঘনা পেট্টোলিয়াম কর্পোরশনের ঝালকাঠি ডিপো সূত্র জানায়, পর্যপ্ত পরিমান ডিজেল না পাওয়ায় চাহিদা অনুযায়ী দিতে পারছিনা। তবে দু’এক দিনের মধ্যে পাওয়া যাবে। এ ব্যাপারে পদ্মা পেট্টোলিয়ামের ঝালকাঠি ডিপো সূত্র জানায়, ঝালকাঠির দুটি পাম্পে আমরা তেল দেইনা। তবে সংকট নেই। আমরা চাহিদা অনুযায়ী দিচ্ছি।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »