আর্কাইভ

ঝালকাঠির সাবেক এমপি ইলেন ভূট্টো লাঞ্ছিত ॥ গাড়ি ভাংচুর

আহমেদ আবু জাফর, ঝালকাঠি ॥ ঝালকাঠি-নলছিটি ২ আসনের সাবেক বিএনপি দলীয় এমপি ইসরাত সুলতানা ইলেন ভূট্টো নলছিটির দপদপিয়া ফেরীঘাট এলাকায় ছাত্রলীগ ও দলীয় নেতা-কর্মী দ্বারা লাঞ্ছিত হয়েছেন। বিগত নির্বাচনের পর এই প্রথম ঢাকা থেকে নলছিটি এলাকায় আসার পথে শুক্রবার দুপুরে দপদপিয়া এলাকায় লাঞ্ছিত হন। খবর পেয়ে নলছিটি থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, শুক্রবার দুপুরে ইলেন ভূট্টো এলাকায় আসার পথে নলছিটিতে ছাত্রদল ও ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ দপদপিয়ায় অপেক্ষা করতে থাকে।

দপদপিয়ায় পৌঁছলে নেতা-কর্মীরা তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে নানা কটুক্তি করে। এ সময় ইলেন’র ব্যবহৃত গাড়িতে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে। ইলেন ভূট্টো এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের বলেছেন, দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে দপদপিয়া এলাকায় গনসংযোগ করতে থাকলে আওয়ামী লীগের উচ্ছৃংখল নেতা-কর্মীরা আমার গাড়ি বহরে হামলা চালিয়ে গাড়ি ভাংচুর করে। এতে মোল্লারহাট ইউনিয়ন বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম আহত হয় বলে তিনি দাবী করেন। নলছিটি থানার ওসি মাসুদুজ্জামান জানিয়েছেন, এ ধরনের একটা ঘটনা শুনেছি, কে বা কারা হামলা করেছে তা আমরা অবগত নয়। তবে এ ব্যাপারে কেউ অভিযোগ করেনি। ঝালকাঠি জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মিঞা আহমেদ কিবরিয়া এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং সাধারন সম্পাদক মনিরুল ইসলাম নুপুর বলেন, তিনি যে এলাকায় এসেছেন তা আমরা কেউ জানি না। তিনি আরো বলেন, বিগত  জোট সরকার আমলের পর তিনি এই প্রথম এলাকায় এসেছেন। তবে এত বছর পর কী কারনে এলাকায় এসেছেন তা আমাদের বোধগম্য নহে।

দলীয় সূত্রে জানাগেছে, ইলেন ভূট্টো গত ওয়ান ইলেভেন’র আগেই এলাকা ছেড়ে ঢাকা ওঠেন। ঢাকা ওঠার পর তিনি স্থানীয় নেতা-কর্মীদের দ্বারা মাইনাস হয়ে সম্পূর্ন জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েন। পরবর্তীতে তিনি নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ’র তৎকালীন প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক খাদ্যমন্ত্রী আলহাজ্জ্ব আমির হোসেন আমু’র কাছে বিপুল ভোটে ধরাশয়ী হন। এরুপ পরিস্থিতিতে তিনি রাতের আধারে এলাকা ছেড়ে যান।

বিএনপি নেতা-কর্মীদের অভিযোগ, গত জোট সরকার আমলে ঠিকাদারী কাজের ১০% টাকার ভাগ নেয়ার পর কি মনে দোষ করে আবার এলাকায় এসেছেন?। এত বছর পর এলাকায় আগমনের পরও তিনি জাপা’র লোকজন  নিয়ে এলাকায় আসলে কর্মীরা এতে ক্ষুব্দ হন। নেতা-কর্মীরা জানান, বিগত ওয়ান ইলেভেনের পর থেকে তিনি এলাকা ছেড়ে চলে যাবার পর জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি মিঞা আহমেদ কিবরিয়া দলের কান্ডারী হিসেবে দল পরিচালনা করে আসছেন। কিন্তু ইলেন ভূট্টো এলাকা থেকে চলে যাবার পর দলের কোন খোঁজ খবর না নেয়ায় এরুপ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে বলে দলীয় একটি সূত্রে জানাগেছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »