আর্কাইভ

সেক্রেটারিকে বাদ দিয়ে সভাপতির সংবর্ধনা গ্রহণ করায় ছাত্রলীগে উৎকণ্ঠা

শাহীন হাসান, বরিশাল ॥ নবগঠিত বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগকে দেওয়া সংবর্ধনা একাই গ্রহণ করলেন সভাপতি জসিম উদ্দিন। দফায় দফায় মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াসিম দেওয়ানকে মুঠোফোনে অনুষ্ঠানে যোগদানে আহবান করা হলেও তিনি যোগদান করেননি। স্বভাবতই খোদ কর্মপরিষদ নেতৃবৃন্দসহ উপস্থিত বিএম কলেজ শিক্ষার্থীদের মধ্যে মহানগর সেক্রেটারির অনুপস্থিতির কারণ নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। সংবর্ধনা নেয়ার জন্য যেখানে বরিশালের বেশিরভার রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দরা উৎসুক হয়ে থাকে, সেখানে ওয়াসিম দেওয়ান কর্তৃক বিপরীত চিত্র প্রদর্শিত হওয়ায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে এ রহস্য আরও বেশি আলোচনায় এসেছে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মহানগর ছাত্রলীগ সেক্রেটারির অনুপস্থিতির কারণ সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে বিএম কলেজ কর্মপরিষদ ভিপি মঈন তুষার জানান, সেক্রেটারি ওয়াসিম ঢাকায় অবস্থান করছেন। কিন্তু সরেজমিন তদন্তে দেখা যায়, গতকাল ওয়াসিম দেওয়ান বরিশাল শহরেই অবস্থান করছিলেন। গোপন একটি সূত্র জানায়, সংবর্ধনা গ্রহণ করার পূর্বে সভাপতি জসিম মোবাইল ফোনে বার বার ওয়াসিম দেওয়ানকে উপস্থিত হওয়ার অনুুরোধ জানান। এমনকি মুঠোফোনে তিনি ওয়াসিমকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “মেয়া আমি একা কেমন দেখায়, আসনা ভাই প¬ীজ।” তার অনুপস্থিতির কারণে অবশ্য অনুষ্ঠান থেমে থাকেনি। সুষ্ঠুভাবেই সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে রাত ৯টা থেকে সোয়া ৯টার মধ্যে। কিন্তু তার সংবর্ধনায় যোগ না দেয়ার রহস্য উদঘাটন করতে গিয়ে জানা যায়, কর্ম পরিষদের সংবর্ধনা গ্রহণ করা মানে অবৈধ কর্ম পরিষদকে স্বীকৃতি দেয়া। যা কিনা গঠিত হয়েছে বিএম কলেজ ছাত্রলীগের অনেক ত্যাগী নেতাদেরকে বাদ দিয়ে। যার দূরনতায় মূলত সংবর্ধনা গ্রহণ করেনি সেক্রেটারি ওয়াসিম। এ বিষয়ে মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াসিম দেওয়ান জানান, আমি অনুষ্ঠানের সময় ঢাকা থেকে বরিশালের পথে আসছিলাম। এ কারণে উপস্থিত থাকতে পারিনি। তবে অনুষ্ঠানে রফিক সেরনিয়াবাত, সৈয়দা ফাতেমা মমতাজ মলি, মাসুদ সেরনিয়াবাত সহ বিশেষ কিছু ব্যক্তি অনুপস্থিত থাকায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে আমার মন সায় দেয়নি।

গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, বিএম কলেজ ছাত্র কর্মপরিষদের ভিপি মঈন তুষার। সভাপতিত্ব করেন, বিএম কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক শুভ সেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন, কর্মপরিষদের জিএস নাহিদ সেরনিয়াবাত। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক ভিপি মাহাবুব সৈকত, বরিশাল কলেজ ছাত্রলীগ নেতা চঞ্চল দাস পাপ্পা, হাতেম আলী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি বাপ্পি, বিএম কলেজ কর্মপরিষদের ছাত্রলীগ নেতা জোবায়ের ও মুন্না সহ ছাত্রলীগের অসংখ্য নেতৃবৃন্দ।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »