আর্কাইভ

বিনা চিকিৎসায় পঙ্গু হতে চলেছে একজন শিক্ষক

বরিশাল প্রতিনিধি ॥ ইউপি নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় সদর উপজেলার বরগুনা মাইঠা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ মিজানুর রহমানের বাম পা ভেঙ্গে গুড়োগুড়ো হয়ে গেছে। সহায় সম্বল বিক্রি করে প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা করালেও টাকার অভাবে তার চিকিৎসা বন্ধ হয়ে গেছে। চিকিৎসার অভাবে সে পঙ্গু হতে চলেছে। মিজানুর রহমান জানান, ২০০০ সালের পহেলা জুলাই থেকে তিনি বরগুনা মাইঠা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক (ইংরেজী) চাকুরী করছেন। বর্তমানে তিনি কলেজিয়েট হাইস্কুল সড়কে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকছেন।

চলতি বছরের ৩১ মার্চ ইউপি নির্বাচনে সদর উপজেলার আয়লা পাতাকাটা ইউনিয়নের ইটবাড়িয়া তুলাতলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার পদে দায়িত্ব পালন করতে যান। ভোট গণনা শেষে রাতে টমটমে নির্বাচন অফিসে ফেরার পথে ইটবাড়িয়া নামক স্থানে দুর্ঘটনায় পতিত হন। তার বাম পা ভেঙ্গে গুড়োগুড়ো হয়ে গেলে তাৎক্ষণিকভাবে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে দশ দিন চিকিৎসার পরে কল্যাণপুর ইবনেসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই মাস ভর্তি থেকে চিকিৎসা করান। এখন পর্যন্ত তার তিনবার অপারেশন করানো হয়েছে। তার চিকিৎসায় এপর্যন্ত দুই লক্ষাধিক টাকা খরচ হয়েছে। ইবনেসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক ডাঃ পারভেজ আহসান জানান, পঙ্গুত্ব থেকে বাঁচাতে হলে তার আরো একবার অপারেশন করতে হবে।

মিজানুর রহমান জানান, দুর্ঘটনার পরে তাকে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে ৩ হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। বাকী টাকা সহায়-সম্পত্তি বিক্রি ও আত্মীয়-স্বজনের কাছ থেকে ধারদেনা করে জোগার করতে হয়েছে। বর্তমানে তার চিকিৎসায় আরো এক লাখ টাকা দরকার। যে টাকা তার নিজের পক্ষে জোগার করা সম্ভব নয়। অসহায় এ শিক্ষক নির্বাচন কমিশনসহ প্রশাসনের সহযোগিতা দাবী করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »