আর্কাইভ

ঋণ পরিশোধে সহায়তা প্রদান

বরিশাল প্রতিনিধি ॥ ব্র্যাকের (এনজিও) কাছ থেকে নেয়া ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পারায় দুই অবুঝ শিশু সন্তানসহ হতদরিদ্র দুলু বেগমকে (৩০) কারাগারে পাঠানোর সংবাদ বিভিন্ন পত্রিকা ও অনলাইনে প্রকাশিত হওয়ায় বরিশালের কৃতি সন্তান প্রাক্তন উপ-সচিব এম এ খান ১০ হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করেছেন। বুধবার দুপুরে বরগুনা প্রেসক্লাবে আনুষ্ঠানিকভাবে দুলুকে সহায়তার টাকা হস্তান্তর করা হয়েছে। প্রেসক্লাবের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে সাংবাদিক মনির হোসেন কামাল টাকা প্রদান করেন।

গত ২৫ নভেম্বর দুপুরে দুলুকে ঋণের দায়ে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। ঐদিন সন্ধ্যায় পাঁচ ও দুই বছরের দুই শিশু সন্তানসহ কারাগারে পাঠানো হয়। ২৬ নভেম্বর বিভিন্ন পত্রিকা ও অনলাইনে সংবাদটি প্রকাশিত হয়। সংবাদটি পরে প্রাক্তন উপ-সচিব এম এ খান সমকালের ডিজিএম (কালেকশন) মোস্তাফিজুর রহমানের মাধ্যমে ঋণ পরিশোধে ১০ হাজার টাকা প্রদান করেন। রোববার (২৭ নভেম্বর) বরগুনা পৌরসভার সাবেক মেয়র ও বরগুনা জজ কোর্টের আইনজীবি মোঃ শাহজাহান জামিনের আবেদন করলে আদালত দুলুর জামিন মঞ্জুর করেন। সন্ধ্যায় দুই শিশু সন্তানসহ দুলু কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছে।

এদিকে দুলুর অসহায়ত্বের সংবাদ প্রকাশের পরে সমাজের সহৃদয়বান ব্যক্তিরা এগিয়ে আসেন। কারাগার থেকে মুক্তি পাবার পরে দুলু বেগমের শুরু হয়েছে চার সন্তানের মুখে দু’বেলা দু’মুঠো খাবার তুলে দেয়া আর মৌলিক চাহিদার দাবী মেটানোর সংগ্রাম। জীবনের জটিল এ হিসেবকেও সহজ করেছেন ওই পাঠকবৃন্দ। এ খবর লেখা পর্যন্ত দুলুর সহযোগিতার জন্য বরগুনা প্রেসক্লাবের সদস্যদের মাধ্যমে ৪৮ হাজার টাকা জমা হয়েছে। সে টাকা থেকে দুলুর ৯ হাজার টাকা ইতিমধ্যেই পরিশোধ হয়েছে। বাকী ৩৯ হাজার টাকা দিয়ে দুলুর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা চলছে। তবে এখনও একাধিক ব্যক্তি দুলুর কর্মসংস্থানের জন্য টাকা পাঠানোর আশ্বাস দিয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় দুলুর কর্মসংস্থানের বিষয়ে বরগুনা প্রেসক্লাবে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় দুলুর উপস্থিতিতে এ সিদ্ধান্ত হয় যে, জমাকৃত টাকা এবং যারা আশ্বাস দিয়েছেন সে টাকা পাওয়া গেলে সকল টাকা দিয়ে দুলুকে জমি কিনে দিয়ে ভালভাবে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে। দুলুর দুর্দিনে যারা আর্থিকভাবে সহযোগিতা করেছেন এবং বরগুনা প্রেসক্লাবের সাংবাদিকসহ যে সকল মিডিয়ায় তার সংবাদ প্রকাশ হয়েছে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন দুলু। দুলুর ঘরে- মীম (৮), তানভীর (৬), রাব্বী (৫) ও মারিয়া (২) নামে চারটি সন্তান রয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »