আর্কাইভ

পটুয়াখালীর জেলা কারাগার থেকে নেপালি গৃহবধূ মুক্ত

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ পটুয়াখালীর কারাগার থেকে নেপালী গৃহবধূ পবিত্রা (২০) ছাড়া পেয়েছে। জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির আইন সহায়তা কেন্দ্রের হেফাজতে গতকাল রোববার সকালে জেলা কারাগার থেকে তাকে মুক্তি দেয়া হয়। এ সময় জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. সাইফুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) আজিমুল হক, কারা কর্মকর্তা (জেলার) এস.এম কামরুল হুদা, জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির আইন সহায়তা কেন্দ্রের বরিশাল বিভাগীয় প্রধান অ্যাডভোকেট কাজী মোসা. মঞ্জুয়ারা বেগম, অ্যাডভোকেট সেলিনা পারভীনসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গত ১ ডিসেম্বর কলাপাড়া উপজেলা জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইয়ারব হোসেন নেপালি গৃহবধূ পবিত্রাকে জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির আইন সহায়তা কেন্দ্রের হেফাজতে মুক্তি প্রদানের আর্দেশ দেন।

এদিকে সদ্যমুক্তিপ্রাপ্ত নিপালি গৃহবধূ পবিত্রাকে দেশে পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির আইন সহায়তা কেন্দ্র। ইতোমধ্যে এ সংস্থাটির কর্মকর্তারা বাংলাদেশে নেপালের রাষ্ট্রদূতসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছেন। এ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে গতকাল রোববারই তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে মহিলা আইনজীবী সমিতির আইন সহায়তা কেন্দ্রের সূত্রে জানা যায়। জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির আইন সহায়তা কেন্দ্রের বরিশাল বিভাগীয় প্রধান অ্যাডভোকেট কাজী মোসা. মঞ্জুয়ারা বেগম জানান, পবিত্রাকে দেশে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। তাকে ঢাকায় নিয়ে আইন সহায়তা কেন্দ্রের সেল্টার হোমে রাখা হবে। আইনি প্রক্রিয়া শেষ করে সংস্থার নির্বাহী পরিচালক অ্যাডভোকেট সালমা আলীর মাধ্যমে নেপালি রাষ্ট্রদূতের কাছে তাকে হস্তান্তর করা হবে। তিনি আরো জানান, পবিত্রা ভাল পরিবারের গৃহবধূ ও মেয়ে। ৩ ভাই-বোনের মধ্যে সে দ্বিতীয়। বড় ভাই নেপালের পুলিশ বাহিনীতে চাকরি করছে। স্বামী মান সিং থাপা সৌদি আরবে থাকে।

উল্লেখ্য, পাচারকারি চক্রের কবলে পড়ে আট মাস ভারতের বোম্বের একটি শহরের অন্তরীণ থাকে বাংলাদেশের গৃহবধূ মাফিয়া বেগম (২২) ও নেপালি গৃহবধূ পবিত্রা (২০)। সেখান থেকে কৌশলে পালিয়ে ভারতের কলকতা হয়ে তারা বাংলাদেশে আসে। মাফিয়া বেগমের সঙ্গে ২১ নভেম্বর তার গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় আসে পবিত্রা। উভয়ে সেখানে অবস্থানকালে কলাপাড়া থানা পুলিশ তাদেরকে আটক করে এবং ২৩ নভেম্বর তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করলে নেপালি গৃহবধূ পবিত্রাকে নিরাপত্তা হেফাজতে রাখার আদেশ দেন বিজ্ঞ আদালত।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »