আর্কাইভ

স্কুল শিক্ষিকাকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বিধবা মাকে মারধর

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ বরিশালের গৌরনদী উপজেলার প্রত্যন্ত মাগুরা গ্রামের এক স্কুল শিক্ষিকাকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় উত্যক্তকারী ও তার সহযোগীরা হামলা চালিয়ে শিক্ষিকার বিধবা মাকে গুরুতর আহত করেছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হলে আসামিরা মামলা প্রত্যাহারের জন্য শিক্ষিকার পরিবারকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকি অব্যাহত রেখেছে। আসামিদের হুমকির মুখে শিক্ষিকা ও তার পরিবারের লোকজন এখন চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন। এ ব্যাপারে তারা প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

হাসপাতালে শষ্যাশয়ী ওই গ্রামের মৃত সূর্যকুমার দাসের স্ত্রী অর্পনা দাস গতকাল শনিবার বিকেলে অভিযোগ করেন, তার কন্যা মাগুরা রেজিষ্টারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা সীমা দাসকে বিভিন্ন সময় কু-প্রস্তাবসহ বিভিন্ন ধরনের উত্যক্ত করে আসছে একই গ্রামের অনুপম দাস। এ ঘটনায় প্রতিবাদ করায় অনুপম ও তার লোকজনে শিক্ষিকা সীমা ও তার বিধবা মা অর্পনা দাসকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। অভিযোগে আরো জানা গেছে, অনুপম দাসের বড়ভাই গৌতম দাসের সাথে দীর্ঘদিন থেকে অর্পনা দাসের জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। ঘটনার দিন গত ২৮ নবেম্বর উত্যক্তের ঘটনার জেরধরে অর্পনার সাথে অনুপমের বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে অনুপম ও তার ভাই গৌতম দাস ও তাদের লোকজনে বিধবা অর্পনার ওপর হামলা চালিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। স্থানীয়রা তাৎক্ষনিক আহত অর্পনা দাসকে গৌরনদী হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়। মামলা দায়ের করায় প্রতিপক্ষের লোকজনে ক্ষিপ্ত হয়ে মামলা প্রত্যাহারের জন্য অর্পনা দাস ও তার কন্যা স্কুল শিক্ষিকা সীমা দাসকে জীবন নাশের হুমকি দিয়ে আসছে। তাদের অব্যাহত হুমকির মুখে বিধবা অর্পনা ও তার কন্যা স্কুল শিক্ষিকা সীমা দাস এখন চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন।

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে গৌতম দাস ও তার লোকজনে অর্পনা দাস ও তার কন্যা সীমা দাসকে একাধিকবার হামলা চালিয়ে আহত করেছিলো।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »