আর্কাইভ

সরকারের বাধ্যতামূলক প্রাথমিক শিক্ষায় অনিশ্চয়তা – সাগর পাড়ের কলাপাড়ায় ২০ হাজার শিক্ষার্থী বই পায়নি

কলাপাড়া সংবাদদাতা ॥ দেশব্যাপী পাঠ্যপুস্তাক উৎসবের দিনে সাগর পাড়ের  কলাপাড়া উপজেলার বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২০ হাজার কোমলমতী শিক্ষার্থীর হাতে বই তুলে দিতে পারেনি উপজেলা শিক্ষা অফিস। বছরের প্রথম দিনে বই নিতে বিদ্যালয়ের বারান্দায় আসা ছাত্র-ছাত্রীদের শূন্য হাতে বিষন্ন মনে বাড়ি ফিরে যেতে হয়েছে। কবে নাগাদ বই পৌছবে শিক্ষার্থীর হাতে,তাও জানাতে পারেনি সংশি¬ষ্ট শিক্ষা অফিস।ফলে সরকারের বাধ্যতামূলক প্রাথমিক শিক্ষা নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। সংশি¬ষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, প্রথম শ্রেণীর বাংলা, ইংরেজি, গনিত, দ্বিতীয় শ্রেণীর বাংলা, ইংরেজি, গনিত, চতুর্থ  শ্রেণীর বাংলা, ইংরেজি, গনিত, প.প.সমাজ, প.প.বিঞ্জান, ইসলাম ধর্ম শিক্ষা, হিন্দু ধর্ম শিক্ষা, বৌদ্ধ ধর্ম শিক্ষা ও পঞ্চম শ্রেণীর গনিত, হিন্দু ধর্ম শিক্ষা, বৌদ্ধ ধর্ম শিক্ষা বই কলাপাড়া উপজেলায় এসে পৌছেনি। বাকি বই এসেছে চাহিদার দুই তৃতীয়াংশ। এই সামান্য বই সংশি¬ষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকরা গত ২৯ ও৩১ ডিসেম্বর উপজেলা শিক্ষা অফিসের মংগলসুখ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের  বইগুদাম থেকে নিতে দেখা গেছে। বই নিতে আসা প্রধান শিক্ষকরা সকল শ্রেণীর বই না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে অনেকে।

কলাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম জানান, আমাদের স্কুলের সকল ছাত্র- ছাত্রী  বই পায়নি। কিছু শিক্ষার্থী বই পেলেও সব বিষয়ের বই এখন পর্যন্ত পায়নি। উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো.রুহুল আমীন বলেন, উপজেলায় এক লক্ষ ৬১ হাজার ৪ শত বইয়ের চাহিদা দেয়া হযেছে। আমরা ৬২ হাজার ৫৭ খানা নতুন বই পেয়েছি। গত বছরের উদ্ধৃত্ব ছিল ৭ হাজার ৫ শত ৫৬ খানা বই। আরো  ৯১ হাজার ৭শত ৮৭ খানা বই দরকার। বাকী বই দুই এক দিনের মধ্যে এসে পৌছাবে। বই আসার পরেই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেয়া হবে বলে জানান।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »