আর্কাইভ

ঘন-কুয়াশায় নৌযান চলাচল ব্যাহত – যাত্রীদের দূর্ভোগ চরমে

উম্মে রুমান, বরিশাল ॥ গত দু’দিনের ঘন কুয়াশায় ঢাকা-বরিশাল নৌ-রুটসহ অভ্যান্তরীন রুটে নৌ-যান চলাচল মারাত্মক হুমকির মূখে পড়েছে। এসকল রুটে যাত্রীবাহী নৌযানগুলো নির্ধারিত সময়ের ১০ থেকে ১২ ঘন্টা  পরে গন্তব্যে পৌছতে হচ্ছে । বৃহস্পতি-শুক্রবার ঢাকা ও বরিশাল দু’প্রান্ত থেকে ছেড়ে যাওয়া নৌযানকে রাতে মাঝপথে দাড়িয়ে থাকতে হয়েছে। ঘনকুয়াশার কারনে লঞ্চের সার্চলাইট গুলো একেবারেই অচল হয়ে পড়ে । ফলে জীবনের ঝুকি নিয়েই এখন লঞ্চগুলো তাদের গন্তব্যে রওয়ানা হয়ে যাচ্ছে বলে দাবী করলেন পারাবাত লঞ্চের বরিশালের সুপারভাইজার সেলিম । তার মতে লঞ্চ গুলো ঘাট থেকে ছেড়ে হিজলা অতিক্রম করার পরই তাকে ঠায় দাড়ীয়ে থাকতে হচ্ছে।

বরিশাল নৌ-বন্দরের সংশ্লিস্ট একাধিক সূত্র জানায়,গত বুধবার ও বৃহস্পতি বার  রাতে ঘন কুয়াশার কারণে ঢাকা-বরিশাল নৌ রুট সহ বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী যাত্রীবাহী লঞ্চ ও পণ্যবাহী নৌযান চলাচল মারাত্মক ভাবে ব্যহত হয়। দক্ষিণাঞ্চলের উদ্দেশ্যে ঢাকা থেকে ছেড়ে যাত্রীবাহী নৌযানগুলো নির্ধারিত সময়ের ১০ থেকে ১২ ঘন্টা  পরে গন্তব্যে পৌছেছে। যাত্রীদের দূর্ভোগ চরমে উঠেছে। বৃহস্পতিবার রাত ৮ থেকে সাড়ে ৮ টায় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা যাত্রী লঞ্চগুলো শুক্রবার বেলা ১২ টা থেকে ২ টার মধ্যে এসে পৌছায়।

দ্বীপরাজ সকাল ১০টায়, কালামখান ১১টায়, সুন্দরবন-৭ ১২টায়, সুরভী-৭ ২টায়, পারাবত-৯- ২টায়, পারাবত-সুরভী আটকা পড়ছে হাইমচর এলাকায়, সুন্দরবন-কালামখান, দ্বীপরাজ চর ভৈরব এলাকায় আটকা পড়ে। সুন্দরবন হিজলা চরে এসে আধা ঘন্টা যাবত আটকা পড়ে পরে সকাল ১০ টায় লঞ্চটি সেখান থেকে ছাড়া পেয়ে ১২ টায় বরিশাল এসে পৌছায়।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »