আর্কাইভ

বরিশাল নগরবাসীর স্বপ্নের দাবি পূরন হচ্ছে

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ বরিশাল নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডে পানি সরবরাহ করার নিশ্চয়তা নিয়ে দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছে বিসিসি। পানির সমস্যা সমাধানে ষাট কোটি টাকা ব্যায়ে শুরু হওয়া ওয়াটার ট্রিটম্যান্ট প্লান্ট স্থাপন কাজটি প্রায় শেষের পথে। বরিশালের কীর্তনখোল নদীর তীরের বেলতলা নামকস্থানের ছয় একর ও রূপাতলী গ্যাসটারবাইন এলাকায় সাত একর জমিতে সারফেস (নদীর পানি) রিফাইন করে নগরী সাধারন জনগনের মাঝে পানি সরবরাহ করার জন্য কাজ শুরু করা হয়েছে। আধুনিক মেশিনের সাহাষ্যে এ দুটি স্থান থেকে প্রতিদিন নদীর পানিকে বিশুদ্ধ করে মোট ৮০ লাখ গ্যালন পানি উত্তোলন করা সম্ভব হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ্যাডভোকেট শওকত হোসেন হিরনের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় নগরীর বর্ধিত এলাকাসহ নগরবাসীর বিশুদ্ধ পানির সমস্যা সমাধানে এ পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে। চলতি বছরের মধ্যে সারফেস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট স্থাপনের কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছেন বিসিসির পানি সরবরাহ শাখার নির্বাহী প্রকৌশলী এস.এম শফিকুর রহমান। নির্বাহী প্রকৌশলী আরো জানান, দীর্ঘদিন ধরে নগরীতে পানির সমস্যায় মানুষ অতিষ্ঠ ছিল। বিসিসি’র এলাকা বর্ধিত হওয়ায় সমস্যাটি প্রকট আকার ধারন করে। সাময়িক ভাবে পানির সমস্যা দূরকরনের লক্ষ্যে সিটি কর্পোরেশন এলাকায় নতুন করে ১৯টি পানির পাম্প স্থাপন করা হয়েছে। নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডের সব অঞ্চলের পানি সরবরাহ করার জন্য প্লান অনুযায়ী পানির পাইপ বসিয়ে অধিকাংশ এলাকায় পাম্পের সাথে সংযোগ দেয়া হয়েছে। পানি পাম্পের সাথে বাকি সংযোগ দেয়া হলে সাময়িকভাবে চলতি অর্থবছরের মধ্যে নগরীতে আর কোন পানির সমস্যা থাকবে না।

নগরীর হাতেম আলী কলেজ এলাকার বাসিন্দা মৃধা আফসার, হাসপাতাল রোড় এলাকার বাসিন্দা মোঃ সেলিম আহম্মেদসহ একাধিক নগরবাসী জানান, বরিশাল পৌরসভা থেকে সিটি কর্পোরেশনে রূপ নেয়ার পর থেকে পানি সমস্যা সমাধানের জন্য নগরবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিলো। স্বপ্নের এ দাবিটি আজ বাস্তবে রূপ নিতে যাচ্ছে। এজন্য তারা বেজায় খুশি। এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গির কবির নানক ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট স্থাপনের কাজের উদ্বোধন করবেন। বিসিসি’র তত্তাবধানে কাজটি যথাযথ সময়ের মধ্যে শেষ হলে নগরীতে আর পানির সমস্যা থাকবে না।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »