আর্কাইভ

বিচার চাইতে গিয়ে স্কুল শিক্ষিকাকে শারীরিক নির্যাতন – মুর্মুর্ষ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজসহ হুমকির ঘটনায় অভিভাবকের কাছে বিচার দিতে গিয়ে শারীরিক নির্যাতনের স্বীকার হয়েছেন এক স্কুল শিক্ষিকা। মুর্মুর্ষ অবস্থায় ওই শিক্ষিকাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় বুধবার সকালে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি Gournadi.comবরিশালের গৌরনদী উপজেলার প্রত্যন্ত উত্তর সরিকল গ্রামে।

আহত ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী সজীব সরদারে বোনের সাথে একই গ্রামের বাসিন্দা ও উপজেলার কান্ডপাশা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা নাসরিন আক্তার মর্জিনার ছোট ভাইয়ের দীর্ঘদিন থেকে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। এ ঘটনায় শিক্ষিকাকে দায়ী করে মালয়েশিয়া প্রবাসী সজীব সরদার সোমবার রাতে মোবাইল ফোনে শিক্ষিকা নাসরিনকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজসহ জীবননাশের হুমকি দেয়।

মঙ্গলবার বিকেলে শিক্ষিকা নাসরিন আক্তার মর্জিনা ও তার মা আকলিমা বেগম প্রবাসী সজিবের বাড়িতে গিয়ে তার পিতা এবং ওই বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান সেলিমের কাছে এ ঘটনার বিচার দেন। এ সময় সেলিম ও তার দু’পুত্র সুজন সরদার ও অনিক সরদার ক্ষিপ্ত হয়ে শিক্ষিকা নাসরিনকে বেদম মারধর করে গুরুতর আহত করে। মুর্মুর্ষ অবস্থায় স্থানীয়রা শিক্ষিকা নাসরিনকে উদ্ধার করে ওইদিন রাতেই গৌরনদী হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।

গৌরনদী থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি আবুল কালাম জানান, এ ঘটনায় বুধবার সকালে তিনজনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের জোরপ্রচেষ্ঠা চলছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

অপরদিকে শিক্ষিকার ওপর হামলার ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে হামলাকারী ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান সেলিম ও তার পুত্রদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ও শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের গৌরনদী উপজেলা শাখার নেতৃবৃন্দরা।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »