আর্কাইভ

দাউদকান্দিতে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু – হাসপাতাল ঘেরাও – পুলিশ মোতায়েন – ঢাকা-হোমনা সড়ক অবরোধ

মাহ্ফুজ ইসলাম শিপ্লু, দাউদকান্দি ॥ গতকাল ২৪ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার সন্ধ্যায় দাউদকান্দি উপজেলার আঙ্গাউড়ায় মুক্তি মেডিকেল সেন্টারে ডাক্তারের ভূল চিকিৎসায় এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু দাউদকান্দিতে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু - হাসপাতাল ঘেরাও - পুলিশ মোতায়েন - ঢাকা-হোমনা সড়ক অবরোধহয়েছে।

নিহতের স্বজনরা জানান, কুমিল্লার তিতাস উপজেলার জিয়ারকান্দি গ্রামের পুলিশের হাবিলদার আউয়াল মিয়ার একমাত্র পুত্র চলমান এসএসসি পরীক্ষার্থী গৌরীপুর সুবল-আফতাব উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র আরিফুজ্জামান(১৬) পেটের ব্যাথা নিয়ে মুক্তি মেডিকেল সেন্টারে চিকিৎসা নিতে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ও হাসপাতালের মালিক ডাঃ মোজাম্মেল হক তাকে একটি ক্যাপসল খাওয়ালে ও ইনজেকশন পুশ করেন। ইনজেকশন পুশ করার কিছুক্ষনের মধ্যেই আরিফুজ্জামানের নাকে মুখে রক্তক্ষরণ হতে থাকে এবং তার অবস্থার মারাত্মক অবনতি দেখে ডাক্তার আরিফুজ্জামানকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে নেয়ায় কথা বলেন। এরই মধ্যে হাসপাতালেই আরিফুজ্জামানের মৃত্যু হয়। এ খবর পেয়ে তার আত্মীয়-স্বজন ও এলাকাবাসী হাসপাতালে ছুটে আসে। উত্তেজিত এলাকাবাসীদের দেখে হাসপাতালের সকল স্টাফ পালিয়ে যায়। ডাঃ মোজাম্মেল হক তার কক্ষের দরজা বন্ধ করে রাখেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উত্তেজিত এলাকাবাসীকে নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করলেও এলাকাবাসী টাওয়ারে আগুন জ্বালিয়ে ঢাকা-হোমনা সড়ক অবরোধ করেন। নিহতের মা ফেরদৌসি বেগম বিলাপ করে  বলেন, বাবারে আমার একমাত্র বুকের ধন আরিফুজ্জামানকে ওরা মেরে ফেলল, এ কথা বলেই তিনি মূর্চ্ছা যান।

জিয়ারকান্দির মোস্তাক জানান, এ হাসপাতালে এর আগেও ভুল চিকিৎসায় ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ ও থানা প্রশাসন জানার আগেই মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে মিমাংসা করে ফেলেন। হাসপাতালের মালিক দরজা এবং মোবাইল ফোন বন্ধ করে রাখায় তার বক্তব্য নেয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে দাউদকান্দি (গৌরীপুর) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডাঃ সরফরাজ হোসেন খান বলেন, বেসরকারীভাবে গড়ে ওঠা ক্লিনিক গুলো নিয়ন্ত্রণ করেন জেলা সিভিল সার্জন। যদি আমাদেরকে এ ব্যাপারে দায়িত্ব দেয় তবে তা দেখবো। দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আনোয়ারুল নাসের জানান, ঘটনাটি আমি শুনেছি এ ব্যাপারে তদন্তপূর্বক ডাক্তারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। উপজেলার বেসরকারী ক্লিনিকগুলোতে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসার এক মাসে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। উল্লেকখ্য এ এলাকায় ব্যাঙ্গের ছাতার মত ডায়াগনষ্টিক সেন্টার ও ভুয়া হাসপাতাল স্থাপিত হওয়ায় প্রতিনিয়ত রোগীগণ প্রতারিত হচ্ছে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »