আর্কাইভ

দলীয় ক্যাডারদের হামলা – আগৈলঝাড়ায় আহত হিজবুত ক্যাডার মিঠুর সাতদিন পর ঢাকায় মৃত্যু

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ উগ্রপন্থি জঙ্গী সংগঠন হিজবুত তাওহীদের একপক্ষের ক্যাডারদের হামলায় অপর পক্ষের আরেক ক্যাডার গুরুতর আহত হয়ে সাতদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে মৃত্যুর কাছে হার মেনেছে। গত শনিবার (২১ এপ্রিল) ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হিজবুত ক্যাডার মিঠু মৃত্যুরকোলে ঢলে পরে। এরপূর্বে গত ১৫ এপ্রিল মিঠু তার দলের অপর তিন সক্রিয় সদস্যকে নিয়ে মামাবাড়ি বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার ডিএসবি গ্রামে বেড়াতে এসেছিলো। সেখানে নিজ দলের প্রতিপক্ষ ক্যাডারদের হামলায় মিঠুসহ অপর তিন হিজবুত সদস্য গুরুতর আহত হয়। তাদের প্রথমে আগৈলঝাড়া ও পরে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিলো। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে গত ১৬ এপ্রিল আহতদের ঢাকার এ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

নিহত খালিদ মাহমুদ মিঠুর পিতা ফজলুল হক জানান, তার বাসা সাভারে হলেও মিঠু ও তার ৪ বন্ধু রাজধানীর কাঁটাবনে ভাড়া বাসায় থাকতো। গত ১৫ এপ্রিল মিঠু তার তিন বন্ধুসহ আগৈলঝাড়া উপজেলার ডিএসবি গ্রামের মামার বাড়িতে বেড়াতে যায়। এ চারজনই হিযবুত তওহীদের সক্রিয় সদস্য। মামাবাড়িতে কাউকে না পেয়ে তারা ওইদিন বিকেলে ঢাকায় আসার জন্য ডিএসপি থেকে মাহিলাড়া বাসষ্ট্যান্ডের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। পথিমধ্যে দুটি মটরসাইকেল ও একটি টেম্পুযোগে ১০/১২ জনের একটি দল তাদের গতিরোধ করে। তারা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মিঠুসহ তার অপর তিন বন্ধু মুন্সিগঞ্জ জেলার উত্তর কুরমিরা গ্রামের আলমগীর হোসনেরে পুত্র শাহিন (২৯), ঢাকার মানিকদি এলাকার সিরাজ মোল্লার পুত্র ইমরান মোল্লা (৩০) ও একই এলাকার আবুল খায়ের সিদ্দিকের পুত্র হিজবুল্লাহ সিদ্দিককে (৩০) অপহরন করে নিয়ে যায়। অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা আগৈলঝাড়ার পাশ্ববর্তী উজিরপুর উপজেলার গজেন্দ্র গ্রামের নির্জনস্থানে নিয়ে মিঠুসহ তার অপর তিনবন্ধুকে হত্যার উদ্দেশ্যে নির্যাতন শুরু করে। এসময় তাদের ডাকচিৎকারে পাশ্ববর্তী জমির কৃষানেরা এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা দ্রুত স্থান ত্যাগ করে। পরে গুরুতর আহত চারজনকেই প্রথমে আগৈলঝাড়া পরে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে ১৬ এপ্রিল তাদের ঢাকার এ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

নিহত মিঠুর বরাত দিয়ে তার পিতা ফজলুল হক আরো জানান, গত তিন মাস পূর্বে হিজবুত তওহীদের প্রতিষ্ঠাতা বায়েজীত খান পন্নি মারা যাওয়ার পর তারস্থলে আরেকজনে দায়িত্ব ভার গ্রহন করেছেন। নতুন দায়িত্বপ্রাপ্তকে না মানার কারনেই দলের অপর সদস্যরা তাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। মিঠু ও তার বন্ধুরা ছিলো নতুন দায়িত্বপ্রাপ্তকে না মানার পক্ষে। ফজলুল হক জানান, নতুন দায়িত্বপ্রাপ্তকে অমান্যকারীদের জোর করে মানানোর নির্দেশ অথবা মেরে ফেলার জন্য উচ্চপর্যায়ের নির্দেশ ছিলো। যে কারনেই মিঠু ও তার বন্ধুদেরকে হত্যার উদ্দেশ্যে অপহরন করা হয়েছিলো বলেও ফজলুল হক উল্লেখ করেন।

এ ব্যাপারে আগৈলঝাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি অশোক কুমার নন্দির সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি অপহরনের পর হামলার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ব্যাপারে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। নিহত মিঠু হিজবুত তওহীদের সদস্য সম্পর্কে ওসির কাছে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, আগে শুনিনি তবে গত ২১ এপ্রিল ঢাকায় বসে মিঠু মারা যাওয়ার পর আমাকে অনেকেই মোবাইল ফোনে জানিয়েছেন মিঠু ও তার বন্ধুরা হিজবুত তাওহীদের সক্রিয় সদস্য ছিলো। আর তাদের ওপর নিজ দলের ক্যাডাররাই হামলা চালিয়েছে।

`jxq K¨vWvi‡`i nvgjv

Av‰MjSvovq AvnZ wnReyZ K¨vWvi

wgVyi mvZw`b ci XvKvq g„Zz¨

†LvKb Avn‡¤§` nxiv \

DMÖcwš’ R½x msMVb wnReyZ ZvInx‡`i GKc‡¶i K¨vWvi‡`i nvgjvq Aci c‡¶i Av‡iK K¨vWvi ¸i“Zi AvnZ n‡q mvZw`b g„Zz¨i mv‡_ cvÄv j‡o Ae‡k‡l g„Zz¨i Kv‡Q nvi ‡g‡b‡Q| MZ kwbevi (21 GwcÖj) XvKvi GKwU nvmcvZv‡j wPwKrmvaxb Ae¯’vq wnReyZ K¨vWvi wgVy g„Zy¨i‡Kv‡j X‡j c‡i| Gic~‡e© MZ 15 GwcÖj wgVy Zvi `‡ji Aci wZb mwµq m`m¨‡K wb‡q gvgvevwo ewikv‡ji Av‰MjSvov Dc‡Rjvi wWGmwe MÖv‡g †eov‡Z G‡mwQ‡jv| †mLv‡b wbR `‡ji cÖwZc¶ K¨vWvi‡`i nvgjvq wgVymn Aci wZb wnReyZ m`m¨ ¸i“Zi AvnZ nq| Zv‡`i cÖ_‡g Av‰MjSvov I c‡i ewikvj †kevwPg nvmcvZv‡j fwZ© Kiv n‡qwQ‡jv| †mLv‡b Ae¯’vi AebwZ n‡j MZ 16 GwcÖj AvnZ‡`i XvKvi G¨v‡cv‡jv nvmcvZv‡j fwZ© Kiv nq|

wbnZ Lvwj` gvngy` wgVyi wcZv dRjyj nK Rvbvb, Zvi evmv mvfv‡i n‡jI wgVy I Zvi 4 eÜy ivRavbxi KvuUve‡b fvov evmvq _vK‡Zv| MZ 15 GwcÖj wgVy Zvi wZb eÜymn Av‰MjSvov Dc‡Rjvi wWGmwe MÖv‡gi gvgvi evwo‡Z †eov‡Z hvq| G PviRbB wnheyZ ZInx‡`i mwµq m`m¨| gvgvevwo‡Z KvD‡K bv †c‡q Zviv IBw`b we‡K‡j XvKvq Avmvi Rb¨ wWGmwc †_‡K gvwnjvov evmó¨v‡Ûi D‡Ï‡k¨ iIqvbv nq| cw_g‡a¨ `ywU gUimvB‡Kj I GKwU †U¤úy‡hv‡M 10/12 R‡bi GKwU `j Zv‡`i MwZ‡iva K‡i| Zviv A‡¯¿i gy‡L wRw¤§ K‡i wgVymn Zvi Aci wZb eÜz gywÝMÄ ‡Rjvi DËi Kziwgiv MÖv‡gi AvjgMxi ‡nvm‡b‡i cyÎ kvwnb (29), XvKvi gvwbKw` GjvKvi wmivR ‡gvj­vi cyÎ Bgivb ‡gvj­v (30) I GKB GjvKvi Aveyj Lv‡qi wmwχKi cyÎ wnReyj­vn wmwÏK‡K (30) Acnib K‡i wb‡q hvq| AÁvZbvgv e¨w³iv Av‰MjSvovi cvk¦eZ©x DwRicyi Dc‡Rjvi M‡R›`ª MÖv‡gi wbR©b¯’v‡b wb‡q wgVymn Zvi Aci wZbeÜy‡K nZ¨vi D‡Ï‡k¨ wbh©vZb ïi“ K‡i| Gmgq Zv‡`i WvKwPrKv‡i cvk¦eZ©x Rwgi K…lv‡biv GwM‡q Avm‡j nvgjvKvixiv `ª“Z ¯’vb Z¨vM K‡i| c‡i ¸i“Zi AvnZ PviRb‡KB cÖ_‡g Av‰MjSvov c‡i ewikvj †ki-B evsjv †gwW‡Kj K‡jR nvmcvZv‡j fwZ© Kiv nq| †mLv‡b Ae¯’vi AebwZ n‡j 16 GwcÖj Zv‡`i XvKvi G¨v‡cv‡jv nvmcvZv‡j fwZ© Kiv nq|

wbnZ wgVyi eivZ w`‡q Zvi wcZv dRjyj nK Av‡iv Rvbvb, MZ wZb gvm c~‡e© wnReyZ ZInx‡`i cÖwZôvZv ev‡qRxZ Lvb cwbœ gviv hvIqvi ci Zvi¯’‡j Av‡iKR‡b `vwqZ¡ fvi MÖnb K‡i‡Qb| bZyb `vwqZ¡cÖv߇K bv gvbvi Kvi‡bB `‡ji Aci m`m¨iv Zv‡`i Ici nvgjv Pvwj‡q‡Q| wgVy I Zvi eÜziv wQ‡jv bZyb `vwqZ¡cÖv߇K bv gvbvi c‡¶| dRjyj nK Rvbvb, bZyb `vwqZ¡cÖv߇K Agvb¨Kvix‡`i †Rvi K‡i gvbv‡bvi wb‡`©k A_ev †g‡i †djvi Rb¨ D”Pch©v‡qi wb‡`©k wQ‡jv| †h Kvi‡bB wgVy I Zvi eÜz‡`i‡K nZ¨vi D‡Ï‡k¨ Acnib Kiv n‡qwQ‡jv e‡jI dRjyj nK D‡j­L K‡ib|

G e¨vcv‡i Av‰MjSvov _vbvi Awdmvi BbPvR© Iwm A‡kvK Kzgvi bw›`i mv‡_ †hvMv‡hvM Kiv n‡j wZwb Acni‡bi ci nvgjvi mZ¨Zv ¯^xKvi K‡i e‡jb, G e¨vcv‡i _vbvq wjwLZ Awf‡hvM Kiv n‡j AvBbMZ e¨e¯’v †bqv n‡e| wbnZ wgVy wnReyZ ZInx‡`i m`m¨ m¤ú‡K© Iwmi Kv‡Q wRÁvmv Kiv n‡j wZwb e‡jb, Av‡M ïwbwb Z‡e MZ 21 GwcÖj XvKvq e‡m wgVy gviv hvIqvi ci Avgv‡K A‡b‡KB †gvevBj †dv‡b Rvwb‡q‡Qb wgVy I Zvi eÜziv wnReyZ ZvInx‡`i mwµq m`m¨ wQ‡jv| Avi Zv‡`i Ici wbR `‡ji K¨vWviivB nvgjv Pvwj‡q‡Q|

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »