আর্কাইভ

যৌণ হয়রানি – বরিশালে স্কুল শিক্ষিকার ওপর এসিড নিক্ষেপ

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ যৌণ হয়রানির বিরুদ্ধে থানায় সাধারন ডায়েরী করায় ক্ষিপ্ত হয়ে এক বখাটে ও তার সহযোগীরা স্কুল শিক্ষিকার ওপর এসিড নিক্ষেপ করে শরীর ঝলসে দিয়েছে। মুমুর্ষ অবস্থায় ওই শিক্ষিকাকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় উজিরপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার গভীর রাতে বরিশালের উজিরপুর উপজেলার শিকারপুর গ্রামে।

এজাহারে জানা গেছে, ওই গ্রামের খীষ্ট্রান সম্প্রদায়ের জোয়াকিন মিস্ত্রির স্ত্রী ও মুন্ডপাশা শিশু শিক্ষা নিকেতনের সহকারি শিক্ষিকা মেরি মিস্ত্রিকে (৩৩) দীর্ঘদিন থেকে যৌণ হয়রানি করে আসছিলো মুন্ডপাশা গ্রামের চিহ্নিত বখাটে যুবক কিবরিয়া বেপারী। এ ঘটনায় গত দশদিন পূর্বে মেরী মিস্ত্রি উজিরপুর থানায় একটি সাধারন ডারেরী করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বখাটে কিবরিয়া বেপারী উত্যক্তের মাত্রা আরো বাড়িয়ে দেয়। তারই ধারাবাহিকতায় রবিবার গভীর রাতে (দুইটার দিকে) শিক্ষিকা মেরি মিস্ত্রি প্রকৃতির ডাকে সারাদিতে ঘর থেকে বের হলে পূর্ব থেকে ওৎপেতে থাকা বখাটে কিবরিয়া ও তার ৪/৫ জন সহযোগীরা তাকে (মেরীকে) ঝাঁপটে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এসময় মেরী ডাকচিৎকার শুরু করলে বখাটেরা তার শরীরে এসিড নিক্ষেপ করে দ্রুত পালিয়ে যায়। মেরী ডাকচিৎকারে বাড়ির লোকজন এগিয়ে এসে মুমুর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে উজিরপুর উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ওই রাতেই তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় মেরীর স্বামী জোয়াকিন মিস্ত্রি বাদি হয়ে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় উজিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। উজিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি সুকুমার রায় মামলা দায়েরের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আসামিদের গ্রেফতারের জন্য জোড়প্রচেষ্ঠা চলছে। তবে মামলা স্বার্থে তিনি আসামিদের নাম না বলার জন্য অনিহা প্রকাশ্য করেন।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »