আর্কাইভ

ঢাকায় স্ত্রীর চিকিৎসা করাতে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় বরিশালের সাংবাদিক টিটু নিহত

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ অসুস্থ্য স্ত্রীর চিকিৎসা করাতে ঢাকায় গিয়ে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন বরিশালের সাংবাদিক শহিদুজ্জামান টিটু (৩৬)। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার দুপুরে ঢাকার রূপসী বাংলা হোটেলের সম্মুখে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ইউনাইটেড পরিবহের একটি বাস টিটুকে চাঁপা দিলে ঘটনাস্থলেই সে নিহত হয়। মৃত্যুকালে টিটু পিতা-মাতা, স্ত্রী, ১ ভাই, ১ বোন ও ৫ বছরের একটি পুত্র সন্তান রেখে গেছেন। টিটু বরিশাল থেকে প্রকাশিত দৈনিক মতবাদ পত্রিকার ফটো সাংবাদিক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

সূত্রমতে, শুক্রবার বেলা একটার দিকে সাংবাদিক টিটুকে বহনকারী একটি রিকসাকে চাঁপা দেয় ইউনাইটেড পরিবহনের একটি বাস। পুলিশ ওই পরিবহনের চালককে আটক করেছে। দৈনিক মতবাদের সিনিয়র ষ্টাফ রিপোর্টার সাইদ মেমন জানান, স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য টিটু গত দু’দিন পূর্বে ঢাকায় যান। এরই মধ্যে ঘাতক বাস টিটুর প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। ফটো সাংবাদিক টিটুর মৃত্যুর খবর বরিশালে পৌঁছলে সাংবাদিক মহলে শোকের ছায়া নেমে আসে। দুপুর থেকেই বিভিন্ন পত্রিকার ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা জড়ো হন নগরীর প্রেসক্লাবের সামনে। এসময় অনেকেই কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। বেলা তিনটায় সিটি মেয়র শওকত হোসেন হিরন টিটুর মরদেহ ঢাকা থেকে বরিশাল আনার জন্য একটি মাইক্রোবাস পাঠালে সংবাদকর্মীরা মাইক্রোবাস নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা টিটুর লাশ বরিশালে এসে পৌঁছায়নি। ঢাকাস্থ বরিশালের সাংবাদিকরা জানান, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে টিটুর প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে বরিশালের সাবেক মেয়র জেলা বিএনপির সভাপতি আহসান হাবিব কামাল ও বিগত সংসদ নির্বাচনে বরিশাল সদর আসনের আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী কর্নেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক শামীম ও শিল্পপতি মশিউর রহমান খান নিহত টিটুর প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। টিটুর লাশ প্রথমে তার কর্মস্থল দৈনিক মতবাদে নেয়া হবে। সেখান থেকে প্রেসক্লাবে এনে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে নিজ বাসভবনে নেয়া হবে। জানাজা শেষে তাকে মুসলিম গোরস্থানে দাফনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সাংবাদিক টিটুর অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন সিটি মেয়র শওকত হোসেন হিরন, মজিবর রহমান সরোয়ার-এমপি, এ্যাডভোকেট তালুকদার মোঃ ইউনুস-এমপি, জনতা ব্যাংকের পরিচালক এ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার বাবলু, বরিশাল প্রেসক্লাবের সভাপতি এ্যাডভোকেট মানবেন্দ্র বটব্যাল, সাধারণ সম্পাদক লিটন বাশার, সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জিএম বাবর আলী, দৈনিক মতবাদের সম্পাদক মুরাদ আহমেদ, নির্বাহী সম্পাদক কাজী মিরাজ, রুর‌্যাল জার্নালিস্ট ফাউন্ডেশনের সভাপতি এম. জহির, আলোকিত সময়ের সম্পাদক খোকন আহম্মেদ হীরা প্রমুখ।

এছাড়া শুক্রবার সন্ধ্যা পৌনে ছয়টার দিকে ধানমণ্ডির সিটি কলেজের পাশে সাংবাদিক বিভাষ চন্দ্র সাহা মৈত্রী পরিবহনের একটি বাস চাপায় নিহত হন। তিনি ইন্ডিপেন্ডেন্ট পত্রিকার সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »