আর্কাইভ

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জের – আগৈলঝাড়ার রাজিহারে বোনের লাশ দাফনে ভাইয়ের বাঁধা

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ আগৈলঝাড়া উপজেলার রাজিহার গ্রামে সম্পত্তির বিরোধকে কেন্দ্র করে বোনের মরদেহ দাফনে বাঁধা দিয়েছে সহদর ভাই ও তার সন্তানেরা। বাঁধার কারনে মরহুমার লাশ কবরে রাখার তিনঘন্টা পর থানা পুলিশের হস্তক্ষেপে দাফন কাজ সম্পন্ন করা হয়। এ নিয়ে এলাকার তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার রাংতা গ্রামের মৃত সৈয়দ আলী ফকিরের পুত্র আব্দুল মজিদ ফকির ও তার বোন হামিদা বেগম ওরফে সুর্য বিবির সাথে দীর্ঘদিন থেকে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে মজিদের বোন হামিদা বেগম বার্ধক্যজনিত কারনে মারা যায়। মারা যাওয়ার পরে দাফনের জন্য হামিদার স্বামী মৃত সরোয়ার ফকিরের সম্পত্তিতে দাফন করার জন্য নির্ধারন করে কবর খোড়া হয়। দাফনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হলে মজিদ ফকির ওই দাফন করা স্থানের সম্পত্তি তার বলে দাবি করে। এনিয়ে বিরোধ দেখা দিলে মজিদের ভাতিজা মনির ফকির বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। মরহুমার মরদেহ জানাজা শেষে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কবরে রাখা হয়। কবরে বাঁশ ও মাটি দেয়ার পুর্বে পুলিশ গিয়ে মাটি দিতে বাঁধা দেয়। মরহুমার মরদেহ সন্ধ্যা ছয়টা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত কবরে শোয়ানো থাকলেও বাঁশ ও মাটি দিতে দেয়া হয়নি। পরবর্তীতে উভয় পক্ষের সমঝোতার পর রাত ৯ টার পরে হামিদার দাফন সম্পন্ন করা হয়।

মজিদ ফকির ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আমার ক্রয়কৃত সম্পত্তিতে মরদেহ দাফন করতে গেলে বাঁধা দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে থানার এস.আই আলাউদ্দিন জানান, আভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয়পক্ষের সমঝোতার মাধ্যমে মরহুমাকে দাফন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »