আর্কাইভ

বামরাইলে জোড়পূর্বক স্কুল শিক্ষার্থীদের নিয়ে মানববন্ধন কর্মসূচী ॥ ক্ষোভ

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ ক্লাশ চলাকালীন সময় বুধবার বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে বরিশালের উজিরপুর উপজেলার বামরাইল এডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জোরপূর্বক ক্লাশ থেকে বের করে নিয়ে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়েছে। স্কুল কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়ে প্রভাব খাটিয়ে শিক্ষার্থীদের নিয়ে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের বামরাইল বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করায় স্থানীয় সুশীল সমাজ ও স্কুল কর্তৃপক্ষের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, ৭ নং বামরাইল ইউনিয়ন পরিষদের নিজস্ব কমপ্লেক্স ভবন নির্মানের স্থান নির্ধারন নিয়ে ইউনিয়নের সাধারন জনগনের সাথে একাত্বতা প্রকাশ করে বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ইউসুফ হোসেন হাওলাদার ও নিজের বাড়ির সম্মুখে ভবন নির্মানের দাবিতে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের আব্দুল মতিন সরদার নান্টুর সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। সৃষ্ট বিরোধের জেরধরে গত ৫ নবেম্বর সরেজমিন পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক মোঃ শহিদুল আলম।

সূত্রমতে, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন সরদার নান্টু তার বাড়ির সম্মুখে ইউনিয়ন পরিষদের স্থায়ী ভবন নির্মানের দাবিতে গতকাল বুধবার মানববন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করেন। ওই কর্মসূচীতে স্থানীয় সংবাদকর্মীদের ব্যাপক লোকসমাগম দেখানোর জন্য স্কুল কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়েই ক্লাশ চলাকালীন সময় জোরপূর্বক ক্লাশ থেকে শিক্ষার্থীদের বের করে নিয়ে যায়। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ জহিরুল ইসলাম, সহকারি শিক্ষক সফিকুল ইসলামসহ অন্যান্য শিক্ষকেরা। এ ঘটনায় ইউনিয়নবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

উজিরপুর উপজেলা পরিষদ ও বামরাইল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক তালুকদারসহ স্থানীয় সুশীল সমাজের একাধিক ব্যক্তিরা জানান, বর্তমান বামরাইল ইউপি ভবনটি সীমান্তবর্তী এলাকায় হওয়ায় ইউনিয়নের প্রত্যন্ত এলাকার জনসাধারনদের পরিষদে যোগাযোগের জন্য দীর্ঘদিন থেকে চরম দুর্ভোগসহ অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় করতে হচ্ছে। সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয় থেকে সম্প্রতি ইউনিয়ন পরিষদের নিজস্ব কমপ্লেক্স ভবন নির্মানের জন্য অর্থ বরাদ্দ করা হয়। যার প্রেক্ষিতে নিজস্ব ভবনের স্থান নির্ধারনের জন্য অতিসম্প্রতি ইউনিয়নের সদস্য-সদস্যা, স্থানীয় সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ ও ইউনিয়নবাসীদের নিয়ে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে ইউনিয়নের প্রত্যন্ত এলাকার জনসাধারনের যোগাযোগের সুবিধার্থে ইউনিয়নের মধ্যবর্তীস্থান হিসেবে সানুহার-সাতলা সড়কের পাশ্ববর্তী সানুহার এলাকাকে নির্ধারন করা হয়। সেমতে ইতোমধ্যে সানুহার বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন পশ্চিম পার্শ্বে ইউনিয়ন পরিষদের নামে ৩০ শতক জমিও ক্রয় করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »