গৌরনদী সংবাদ

ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে ইট দিয়ে সংস্কার কাজ করায় জনতার বিক্ষোভ

ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের গৌরনদী উপজেলার কাছেমাবাদের হরিসেনা এলাকায় শুক্রবার দুপুরে ইটের টুকরো ও বালি দিয়ে সংস্কার কাজ করতে গিয়ে জনতার তোপের মুখে পরেছেন সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তারা। নিন্মমানের নির্মান সামগ্রী দিয়ে সংস্কার কাজ করায় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ধাওয়া করে সওজের ওয়ার্ক এ্যাসিসেন্টন্ট (কার্য সহকারী) দেলোয়ার হোসেনকে শারিরিক লাঞ্ছিত করে কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন। এসময় ওই এলাকায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন এলাকার কয়েক’শ নারী-পুরুষেরা।

বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন থেকে খান্দাখন্দে ভরা মহাসড়কের কাছেমাবাদ বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন হরিসেনা এলাকায় শুক্রবার দুপুরে সড়ক ও জনপথের ২৯জন শ্রমিক নিয়ে পঁচা ইটের টুকরো, বালি ও নামেমাত্র বিটুমিন দিয়ে কাজ শুরু করা হয়। নিন্মমানের ইটের টুকরো দিয়ে কাজ শুরু করার পর স্থানীয়রা তাৎক্ষনিক কাজে বাঁধা প্রদান করেন। বাঁধা উপেক্ষা করে ঘটনাস্থলে উপস্থিত সড়ক ও জনপথ বিভাগের কার্যসহকারী (ওয়ার্ক এ্যাসিস্টেন্ট) মোঃ দেলোয়ার হোসেন নির্দেশে শ্রমিকেরা কাজ অব্যাহত রাখায় স্থানীয়দের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

পরবর্তীতে স্থানীয় কয়েক’শ নারী-পুরুষ ও শিশুরা পঁচা ইটের টুকরো ও বালি দিয়ে মহাসড়ক সংস্কারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। একপর্যায়ে বিক্ষুব্ধরা কার্যসহকারী দেলোয়ার হোসেনকে শারিরিক ভাবে লাঞ্ছিত করে তার শরীরের বিভিন্নস্থানে বিটুমিনের ছাঁপ একে দিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়। জনতার তোপের মুখে সওজের কার্যসহকারী দেলোয়ার হোসেন ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে নিজেকে রক্ষা করেন।

লেবার সর্দার মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন, সওজ কর্মকর্তাকের নির্দেশে ইটের টুকরো ও বালি দিয়ে আমরা মহাসড়কের গর্ত ভরাটের কাজ করছি। এখানে আমাদের কিছুই করার নেই।

উল্লেখ্য, এরপূর্বেও মাহিলাড়া নামকস্থানে নিন্মমানের নির্মান সামগ্রী দিয়ে কাজ করতে গিয়ে জনতা হাতে লাঞ্ছিত হয়েছিলেন সওজের সহকারি প্রকৌশলী নাসির উদ্দিন।

আরও সংবাদ...

Back to top button