গৌরনদী সংবাদ

বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে গৌরনদী হাইওয়ে পুলিশের চাঁদাবাজি

বরিশালের গৌরনদী হাইওয়ে থানা পুলিশের বিরুদ্ধে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে রাতভর চাঁদাবাজি করার অভিযোগ উঠেছে। তাদের চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন ট্রাক ও পিকআপ ভ্যান মালিক-চালকেরা।

বরিশাল থেকে ঢাকা, খুলনা, যশোর, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে যাতায়াতের প্রবেশদ্বার গৌরনদী উপজেলায় স্থাপিত হয়েছে গৌরনদী হাইওয়ে থানা পুলিশ। মহাসড়কে নিরাপত্তা, দুর্ঘটনা রোধ ও মাদক চোরাচালানী আটক হাইওয়ে পুলিশের প্রধান কাজ। বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে প্রতিদিন হাজার হাজার যাত্রীবাহী এবং মালবাহী যানবাহন চলাচল করে।

গৌরনদী হাইওয়ে থানা পুলিশের বিরুদ্ধে যানবাহন থেকে চাঁদাবাজির অভিযোগ দীর্ঘ দিনের। অনুসন্ধানে জানা গেছে, প্রতিদিন সকাল থেকে শুরু করে সন্ধ্যার পর টহলের নামে তাদের চাঁদাবাজি ব্যাপক রূপ নেয়।

ভুক্তভোগী পিকআপ ভ্যান চালক রাসেল, ট্রাক চালক মালেক খান ও জাহাঙ্গীর জানান, বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের উজিরপুর উপজেলার আটিপাড়া রাস্তার মাথা নামক স্থানের দক্ষিণ পাশে, বামরাইল বাসস্ট্যান্ডের উত্তর পাশে বাইসখোলা, গৌরনদী উপজেলার মাহিলারা বাসস্ট্যান্ডের দক্ষিণ পাশে, টরকী বাসস্ট্যান্ডের দক্ষিণ পাশে এবং বার্থি বাসস্ট্যান্ডের উত্তর পাশে ইল্লা নামক স্থানসহ কয়েকটি পয়েন্টে তারা রাতভর এই চাঁদাবাজি করে।

তারা আরো জানান, মামলা দেয়ার ভয় দেখিয়ে কিংবা কাগজপত্র দেখার নামে তারা নিয়মিত চাঁদা নিলেও কিছুই করার নেই। ট্রাকের চালক-হেলপারদের বেধড়ক মারধর করা এই হাইওয়ে পুলিশের নিয়মিত অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। আবার কাগজপত্রবিহীন যানগুলো ধরে থানায় এনে মামলা না দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

তবে এ সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন গৌরনদী হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিয়ার রহমান।

আরও সংবাদ...

Back to top button