আর্কাইভ

বরিশাল বিএম কলেজে ১৭দিন পর তালা খুলেছে মেয়র হিরন

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ বরিশাল ব্রজমোহন (বি.এম) কলেজের সাবেক অধ্যক্ষকে বদলীর ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের ঝুলিয়ে দেয়া  তালা ১৭ দিন পর শনিবার সকালে খুলে দেয়া হয়েছে। বরিশাল সিটি করর্পোরেশনের মেয়র শওকত হোসনে হিরন নিজেই ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে এ তালা খুলে দেয়ার দিয়েছেন।

সূত্র মতে, গত ৩০ জানুয়ারি বদলী করা বিএম কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. ননী গোপাল দাসকে বহাল রাখতে সাধারন শিক্ষার্থীরা ৩১ জানুয়ারি থেকে কলেজের প্রতিটি একাডেমিক এবং প্রশাসনিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেয়। যে কারনে ৩১ জানুয়ারি থেকে  কলেজের সকল ক্লাশ, পরীক্ষা এবং প্রশাসকিন কার্যক্রম বন্ধ ছিলো। বিএম কলেজের উপাধাক্ষ্য কাজী নজরুল ইসলাম জানান, শনিবার সকাল আটটায় মেয়র নিজেই কলেজে আসেন। এরপর তিনি তালাবদ্ধ করে রাখা প্রশাসনিক ভবন খুলে দেন। মেয়র কিছু সময় অধ্যক্ষের কার্যালয় বসে শিক্ষকদের সাথে কথা বলেন। পরে মেয়র চলে যাবার পরই কলেজে সম্মান শ্রেনীর দ্বিতীয় বর্ষের চুড়ান্ত পরীক্ষা শুরু হয়।

উল্লে­খ্য, নতুন অধ্যক্ষ শংকর চন্দ্র দত্ত কর্মস্থলে যোগদান করতে আসলে গত মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের হাতে লাঞ্চিত হন। এ ঘটনায় অধ্যক্ষ শংকর চন্দ্র দত্ত থানায় সাধারন ডায়েরী করেন। এছাড়াও পুলিশ বাদি হয়ে নামধারী চার জনসহ ১৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। বরিশাল সিটি মেয়র শওকত হোসেন হিরন চার লাঞ্চিতকারীকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেন। এ ঘটনায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় সাবেক ও বর্তমান দুই অধ্যক্ষকেই ওএসডি করে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরে সংযুক্তি করেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »