আর্কাইভ

ঝালকাঠি জেলা বিএনপিতে ব্যারিষ্টার শাহজাহান ওমর সভাপতি করায় কেন্দ্রীয় অফিসের সামনে বিক্ষোভ

আহমেদ আবু জাফর, ঝালকাঠি ॥ সংস্কারবাদী খ্যাত ব্যারিষ্টার মুহাম্মদ শাহজাহান ওমরকে বীর-উত্তমকে সভাপতি  করে ত্যাগী নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে কমিটি অনুমোদন দেয়ায় দলের নয়াপল্টনস্থ দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ঝালকাঠি বিএনপির একাংশের নেতাকর্মীরা। শনিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। ৩ বছর আগে গঠিত এ কমিটি নিয়ে দু’টি গ্র“প ব্যাপক লবিং তদ্বির ও আন্দোলন সংগ্রাম করে আসলেও শেষ পর্যন্ত শাহজাহান ওমর সমর্থিত গ্র“পটি কেন্দ্রে অনুমোদন লাভ করে। ফলে পুনরায় দলের একাংশের নেতাকর্মীদের মাঝে আবারো অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

বিক্ষোভে অংশ নেয়া জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ জানায়, গত ২০১০ সালের ১৯ ফেব্র“য়ারী এক সম্মেলনে গঠিত খসড়া কমিটিতে সাবেক আইন প্রতিমন্ত্রী ব্যারিষ্টার এম শাহজাহান ওমরকে সভাপতি ও সাবেক ছাত্রনেতা মনিরুল ইসলাম নুপুরকে সাধারণ সম্পাদক করে একটি কমিটির প্রস্তাব দেয় কেন্দ্রে। গত ১০ ফেব্র“য়ারী দলের মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অনুমোদন করেন। ১শ৫১ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটিতে ঝালকাঠি জেলা বিএনপি’র ত্যাগী নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে অনুমোদন করায় বিক্ষোভ করে। এতে বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য জেবা আহমেদ খান, সাবেক বাকসু ভিপি মাহবুবুল হক নান্নু, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রফিক হাওলাদার, গোলাম মোস্তফা ছালু, মাহবুব আলম খান, যুবদলের কামরুল ইসলাম প্রমুখ নেতৃবৃন্দসহ ৩ শতাধিক নেতাকর্মী অংশ নেয়।

বিক্ষোভকারীদের পক্ষে জেলা বিএনপি নেতা ও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম-সম্পাদক রফিক হাওলাদার  জানান, অনুমোদিত এ কমিটিতে সংস্কারবাদী খ্যাত শাহজাহান ওমরকে সভাপতি করায় আমরা আন্দোলন করছি। এ বিষয়ে দলের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক রিজভী আহমেদ’র সাথে সাক্ষাৎ করেছি। কমিটিতে দূর্দিনের কান্ডারী ও ত্যাগী নেতা-কর্মীদের সমন্বয়ে কমিটি গঠনের দাবী জানানো হয়েছে। তবে রিজভী আহমেদ ঝালকাঠি বিএনপি’র কমিটি অনুমোদন সংক্রান্ত বিষয়টি ভেবে দেখবেন বলে আশ্বাস দেন। এদিকে গত নির্বাচনে ঝালকাঠি-১ আসনের বিএনপি দলীয় প্রার্থী রফিকুল ইসলাম জামালকে কমিটিতে না রাখার ব্যাপারে বলেন, ‘সংস্কারবাদী শাহজাহান ওমর আমার জনপ্রিয়তাকে ভয় পেয়ে এ কমিটিতে রাখেনি। তবে শাহজাহান ওমরের ঘোষিত কমিটি কেন্দ্রের দপ্তর সম্পাদক রিজভী আহমেদ ও বরিশাল বিভাগের দায়িত্বে থাকা দলের যুগ্ম-মহাসচিব ও সাবেক এমপি সালাহউদ্দিন আহমেদ ও বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মজিবুর রহমান সরোয়ার এমপিও জানেন না’।

এ সময় উত্তেজিত নেতাকর্মীরা শাহজাহান ওমরকে কটুক্তি করে বিভিন্ন শ্লোগানও দেয়। এ ব্যাপারে অনুমোদন পাওয়া কমিটির সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম নুপুর বলেন, বিক্ষুব্ধ কিছু ব্যক্তি থাকতে পারে। এরা বিএনপি করেনা। দলের দপ্তর সম্পাদকের কাছে গেলে তাদেরকে তাড়িয়ে দিয়েছে বলে সে জানায়।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »