আর্কাইভ

প্রায় আড়াই কোটি টাকা ব্যায়ে এফএম রেডিও সম্প্রচারের প্রস্তুতি সম্পন্ন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশালসহ দক্ষিনাঞ্চলের লাখ লাখ মানুষ এফএম ব্যান্ড রেডিও’র মাধ্যমে বয়েস অব আমেরিকা,বিবিসি লন্ডনসহ আঞ্চলিক বিভিন্ন অনুষ্ঠান শোনার জন্য অপেক্ষার পালা শেষ। ইতিমধ্যেই প্রায় আড়াই কোটি টাকা ব্যায়ে এফএম ব্যান্ড রেডিও সম্প্রচারের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে বলে জানিয়েছেন বরিশাল বেতার কর্তিপক্ষ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বর্তমান সরকার ক্ষমতা গ্রহনের পর বাংলাদেশ বেতারের আওতাভুক্ত রেডিও সম্প্রচারের সাথে এফএম রেডিও চালুর উদ্যোগ গ্রহন করেন। সেই সাথে সারাদেশে এফ এম রেডিও নেটওয়ার্কের প্রত্যাবর্তনের প্রকল্প হাতে নেন। পাশাপাশি দেশের ১১টি বেতার কেন্দ্রে এফ এম রেডিও প্রকল্প চালুর জন্য প্রায় ২৭ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্ধারিত হয়। ১১টি এফএম রেডিও’র মধ্যে বরিশাল বেতার অঞ্চলের জন্যে ১টি নির্ধারিত হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র আরো জানায়, বরিশাল বেতার কেন্দ্রে এফএম রেডিও প্রকল্পের ২০০ ফুট টাওয়ারসহ অন্যান্য যন্ত্রাংশ বসানো হয়েছে। বিগত ২২ জানুয়ারী বাংলাদেশ ব্রডকাস্ট ইলেকট্রক্সি (ইউএসএ) কর্তৃপক্ষ কমিশনিং (সংযোজন) শেষে এফএম ব্যান্ড রেডিও পরীক্ষামূলক সম্প্রচার শুরু করেছেন। কিন্ত সম্প্রচার করতে গিয়ে পড়েছে ঝামেলায়।

বেতার কর্তৃপক্ষ জানায়, তাদের যে বিদ্যুৎ লাইন রয়েছে সেটি বরিশাল পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ রহমতপুর থেকে নেয়া। ঐ বিদ্যুৎ সংযোগ থেকে সঠিকভাবে বিদ্যুৎ না পাওয়ায় এফএম রেডিও নিয়মিত সম্প্রচারে বাঁধাগ্রস্ত হতে হচ্ছে। এমনকি পল্লী বিদ্যুৎ সংযোগ বরিশাল বেতারের থেকে এফএম রেডিও চালু করতে গিয়ে অনেক যন্ত্রাংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এতে এফ এম রেডিও চালুর জন্য ২০০৯ সনের জানুয়ারী মাসে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ বিভাগ তথা বরিশাল ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানীকে এক্সপ্রেস ফিডার (১১ কেভি) বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়ার আবেদন করেন। কিন্ত ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী বিদ্যুৎ সংযোগ না দেয়ায় বরিশাল বেতার কর্তৃপক্ষ এফএম ব্যান্ডের রেডিও সম্প্রচার নিয়ে বিপাকে পড়েছে। কবে ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করবে তাও নিশ্চিত করতে পারেনি বরিশাল বিদ্যুৎ বিভাগ। তখন ওয়েস্টজোন নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ লাইনের ক্ষেত্রে প্রায় ২৩ লাখ টাকার একটি ডিমান্ড লেটার (চাহিদা পত্র) বেতার কর্তৃপক্ষকে প্রদান করেন। কিন্তু প্রকল্পের অর্থ সংকটের কারনে ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানীকে চাহিদা পত্রের বিপরীতে টাকা প্রদান করতে পারেনি বরিশাল বেতার।

পরবর্তীতে অর্থ বরাদ্দ হলে বরিশাল বেতার ২০১১ সনের ৬ এপ্রিল ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানীকে এফএম প্রকল্পের মাধ্যমে প্রায় ২৩ লাখ টাকার চেক প্রদান করেন।

এরপর প্রায় ২ বছর অতিবাহিত হলেও ওজোপাডিকো এফএম প্রকল্পের এক্সপ্রেস ফিডার (১১ কেভি) বিদ্যুৎ লাইন সংযোগ প্রদান করেনি। শুধুমাত্র ১১টি বৈদ্যুতিক খুঁটি স্থাপন করেছেন। এমনকি খুঁটিতে বৈদ্যুতিক তার স্থাপনসহ অন্যান্য যন্ত্রপাতি স্থাপন করেনি বিদ্যুৎ বিভাগ।

এতে এফএম রেডিও’র ইউপিএস ট্রান্সমিটারের কয়েকটি যন্ত্রাংশের কয়েল পুড়ে যায়। এমনকি পল্লী বিদ্যুতের যে সংযোগ রয়েছে তাতে ৫ থেকে ৬ ঘন্টা বিদ্যুতের লোডশেডিং থাকে। পাশাপাশি ভোল্টেজ আপডাউন (কমেবাড়ে)। ফলে এফএম রেডিও সম্প্রচার করতে হিমশিম খাচ্ছে কর্তিপক্ষ।

সূত্র আরো জানায়, এফএম রেডিও পুরো চালু হলে বরিশালসহ দক্ষিনাঞ্চলের সাধারন মানুষ মোবাইল, রেডিও, অন্যান্য ইলেকট্রনিক্স ডিভাইসের মাধ্যমে অনুষ্ঠান উপভোগ করতে পারবে সম্প্রচাকৃত অনুষ্ঠানগুলো।

সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বরিশাল বেতারের আঞ্চলিক প্রকৌশলী মো: রবিউল ইসলাম জানায়, ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন (বিদ্যুৎ বিভাগ) কোম্পানীকে এক্সপ্রেস ফিডার (১১ কেভি) বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য প্রায় ২ বছর হয়েছে টাকা প্রদান করা হয়েছে। কিন্ত তারা বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করেনি। ফলে এফএম রেডিও সম্প্রচার নিয়ে বিপাকে পড়েছে।

এমনকি বিদ্যুৎ সংযোগের ক্ষেত্রে কয়েকবার লিখিতভাবে ওজোপাডিকোকে বলা হয়েছে। এতে এফএম রেডিও’র সম্প্রচারিত অনুষ্ঠান থেকে বঞ্চিত হচ্ছে দক্ষিনাঞ্চলের লাখ লাখ মানুষ (শ্রোতা)। তিনি আরো জানান, এফএম রেডিও সম্প্রচারের জন্য বরিশাল বেতার কর্তৃপক্ষ ঢাকায় প্রধান কার্যালয়ে জনবল নিয়োগের জন্য লিখিতভাবে জানিয়েছেন।

বিদ্যুৎ সংযোগের বিষয়ে বরিশাল ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানীর দায়িত্বরত নির্বাহী প্রকৌশলী মু: আ: সালেক খান জানায়, আপনারা জানেন সাড়াদেশে বিদ্যুৎ সরবরাহ নিয়ে কিছু সমস্যা রয়েছে। তবে দু’সপ্তাহের মধ্যে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করা হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

এব্যপারে আলাপকালে সিটি মেয়র শওকত হোসেন হিরন আজ  বলেন, আমি মনে করি এটা কোন বড় বাঁধা নয়। দক্ষিনাঞ্চলের লাখ লাখ মানুষের প্রয়োজনে এফএম রেডিও সম্প্রচারের উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে। এ সমস্যা অল্প কিছু দিনের মধ্যে সমাধান করা সম্ভব।

উল্লেখ্য, এফএম রেডিও প্রকল্পের আওতাধীন বরিশাল অঞ্চলের না হলেও ইতিমধ্যে খুলনা,সিলেটসহ অন্যান্য অঞ্চলে কয়েকটি চালু করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »