আর্কাইভ

নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন নির্যাতিতা তরুনীর পরিবার

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে কামড়িয়ে জখম, শ্লীলতাহানী ও শারিরিক নির্যাতনের আহত হয়ে হাসপাতালের বেডে অসহ্য যন্ত্রনায় কাতড়াচ্ছে নির্যাতিতা তরুনী ও বাকপ্রতিবন্ধী আইরিন খানম (১৬)। এরইমধ্যে হাসপাতাল ত্যাগ ও মামলা উত্তোলনের জন্য বখাটেদের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের অব্যাহত হুমকির মুখে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন নির্যাতিতা ও তার পরিবারের সদস্যরা। ঘটনাটি বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার মধ্যশিহিপাশা গ্রামের।

নির্যাতিতা আইরিনের পিতা অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জেন্ট আব্দুল মজিদ গোমস্তা জানান, তার বাক প্রতিবন্ধী ষোড়শী কন্যা আইরিন খানম গত ৫ মার্চ সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে বাড়ির পুকুরে ওজু করতে যায়। এসময় প্রতিবেশী আনোয়ার মোল্লার বখাটে পুত্র আসাদুজ্জামান সুজন (১৮), মোদাচ্ছের আলীর পুত্র রাকিব (১৯) সহ তাদের আরো দু’সহযোগীরা তরুনীকে মুখ চেপে ওড়না দিয়ে হাত বেঁধে জোড়পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে শরীরের বিভিন্নস্থানে কামড়িয়ে শ্লীলতাহানী করে। এসময় তরুনীর গোঙ্গানীর শব্দ পেয়ে ঘরের লোকজনসহ বাড়ির লোকজনে এগিয়ে আসলে বখাটেরা পালিয়ে যায়। আহত অবস্থায় আইরিনকে ওইদিন রাতেই আগৈলঝাড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় তরুনীর পিতা পরেরদিন সকালে বাদি হয়ে আগৈলঝাড়া থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে বখাটে আসাদুজ্জামান সুজনকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনার পর বখাটেদের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের হুমকির মুখে আহত আইরিনকে গত ৭ মার্চ আগৈলঝাড়া থেকে গৌরনদী হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়। বখাটেদের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা শুক্রবার দুপুরে গৌরনদী হাসপাতাল এসেও হাসপাতাল ত্যাগ ও মামলা উত্তোলনের জন্য হুমকি দিয়েছে। ফলে বর্তমানে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন নির্যাতিতা তরুনী ও তার পরিবারের সদস্যরা।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »