আর্কাইভ

সাংবাদিকদের অনুষ্ঠান বর্জন বাকেরগঞ্জের ইউএনও’র জামায়াত প্রীতি

নিজস্বব সংবাদদাতা ॥ রিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার নবযোগদানকারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার জামায়াত প্রীতি ও আপত্তিকর আচারনে ক্ষুব্ধ হয়ে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে মহান স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান বর্জন করেছেন স্থানীয় সংবাদকর্মীরা। পরবর্তীতে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথির অনুরোধে সংবাদকর্মীরা পূর্ণরায় অনুষ্ঠানে যোগদান করেছেন। ইউএনও’র আপত্তিকর আচারনে পুরো উপজেলা জুড়ে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদকর্মীরা অভিযোগ করেন, উপজেলার পরিষদ মিলনায়তনে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারবর্গের সংবর্ধনা দেয়া হয়। এরপূর্বে জেএসইউ মডেল হাই স্কুল মাঠের স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে সাংবাদিকেরা ছবি তুলতে গেলে ইউএনও ইউএনও মৃধা মোঃ মোজাহিদুল ইসলাম তাদের বাঁধা প্রদান করেন। এসময় কারন জানতে চাইলে ইউএনও উপস্থিত সংবাদকর্মীদের সাথে অশোভন আচরণ করেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক উপস্থিত সংবাদকর্মীরা অনুষ্ঠান বর্জনের ঘোষণা দিয়ে অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন। পরবর্তীতে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান শামসুল আলম চুন্নু ও বিশেষ অতিথি থানার চৌকস অফিসার ইনচার্জ ওসি মোঃ নুরুল ইসলাম-পিপিএম’র অনুরোধে সংবাদকর্মীরা পুর্ণরায় অনুষ্ঠানে যোগদান করেন।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, নবাগত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৃধা মোঃ মোজাহিদুল ইসলামের সাথে স্বাধীনতা বিরোধী জামায়াত ইসলামীর ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক থাকায় অতিসম্প্রতি তিনি এ উপজেলায় যোগদান করার পর থেকেই জামায়াতের নেতা-কর্মীরা মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে। এমনকি গত কয়েকদিন ধরে জামায়াত-শিবিরের একাধিক বৈঠকও অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পরলে স্বাধীনতার স্ব-পক্ষের শক্তি উপজেলাবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে ইউএনও মৃধা মোঃ মোজাহিদুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »