আর্কাইভ

আগৈলঝাড়ায় সড়কের গাছ পরে একই পরিবারের ৫ জন আহত

আগৈলঝাড়া সংবাদদাতা ॥ বরিশালের আগৈলঝাড়ায় বসত ঘরের উপর বনবিভাগের গাছ পরে সম্পূর্ণ বিধস্ত হয়েছে। এত একই পরিবারের ৫জন আহত হয়েছে। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানাগেছে, উপজেলার বাকাল ইউনিয়নের বড়মগরা গ্রামের গতকাল বুধবার সকালে বন বিভাগের রোপনকৃত ঘোড়ারপাড়-পয়সারহাট সড়কের একটি শিশু গাছ মুকুন্দ লাল ঘরামীর বসত ঘরের উপর উপরে পরে সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়। এসময় মুকুন্দ লাল তার পরিবারদের সাথে সকালের খাবার খাচ্ছিলেন। গাছ পড়ায় ঘরে থাকা মুকুন্দ লাল ঘরামী (৬০), স্ত্রী পুষ্প রানী (৫৫), ছেলে বউ লিপি ঘরামী (৪০), নাতি গোপাল ঘরামী (১০)  ও গোবিন্দ ঘরামী (৫) আহত হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় মুকুন্দ লাল ঘরামীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় উপজেলা সামাজিক বনায়ন কর্মকর্তা আরিফুর রহমান ও বাকাল ইউপি চেয়ারম্যান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। উপজেলা সামাজিক বনায়ন কর্মকর্তা আরিফুর রহমান জানান, ১৯৯০-৯১ সালের সড়কটিতে বনবিভাগ ৩২শ’ গাছ রোপন করে। যারমধ্যে শিশুগাছও রয়েছে। এদেশের আবহাওয়ায় শিশু গাছ ১৫ থেকে ২০ বছর বয়স পর্যন্ত বেড়ে ওঠে এবং একপর্যায়ে মারা যায়। তবে উক্ত গাছটির গোড়ায় মাটি না থাকায় গাছটি উপড়ে পরে ঘরটি বিধ্বস্ত হয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন স্থানে রাস্তার পাশে এধরণের অসংখ্য গাছ ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। এগুলো কাটার জন্য মন্ত্রনালয়ের অনুমতি সময় সাপেক্ষ হওয়ার কারণে গাছগুলো কাটা যাচ্ছে না। তবে বনবিভাগের ঝুঁকিপূর্ণ গাছগুলো সম্প্রতি কাটা না হলে আগামী কালবৈশাখী ঝড়ে গাছগুলো পরে বড় ধরণের দুর্ঘটনার ঘটবে বলে আশংকা করছেন এলাকাবাসী।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »