আর্কাইভ

বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে উদ্বুদ্ধকরণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ বরিশালের আগৈলঝাড়ায় উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শনিবার সকালে বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ উদ্ধুদ্ধকরণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা সদরের শ্রীমতি মাতৃমঙ্গল বালিকা বিদ্যালয় হল রুমে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কালাম তালুকদারের সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন বরিশাল বিভাগীয় কশিনার মো. নুরুল আমিন।

প্রধান অতিথী তার বক্তব্যে বলেন, দেশের প্রচলিত বাল্য বিয়ে নিরোধ আইনে ২১ বছরের নীচে কোন পুরূষ ও ১৮ বছরের নীচে কোন নারীর মধ্যে সম্পাদিত বিয়েই বাল্য বিয়ে হিসেবে গন্য করা হবে। ২০১১ সালের ইউনিসেফের তথ্য মতে, বাংলাদেশে ১৮ বছর বয়সের আগে ৬৬ শতাংশ মেয়ে এবং একই বয়সের ৫ শতাংশ ছেলের বাল্য বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় বাল্য বিয়ের বিভিন্ন খারাপ দিক ও যারা বাল্য বিয়ে পরান- যেমন কাজী, পুরোহিত, ধর্মিয় যাযক তাদের এবিষয়ে সতর্ক দৃষ্টি রাখা সহ প্রশাসনের প্রতি বাল্য বিয়ে বন্ধের আহ্বান জানান। সেচ্ছাসেবি সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশন ও গৌরনদী সিসিডিবি’র আয়োজনে ওই সভায় বিশেষ অতিথী ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মো. দাউদ মিয়া, আগৈলঝাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম মোর্তুজা খান। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মো. ইউসুফ মোল্লা, ভাইস চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন সরদার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবুল হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা আ. রইচ সেরনিয়াবাত, ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন লাল্টু, ইলিয়াস তালুকদার, বিপুল দাস, শিক্ষক সুনীল কুমার বাড়ৈ, নির্মলেন্দু বাড়ৈ, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো.সাজ্জাদ হোসেন, খ্রিষ্টীয় সম্প্রদায়ের পুষ্প রানী বিশ্বাস, ইমাম সমিতির সভাপতি মো. ইসমাইল হোসেন, গৈলা দাখিল মাদ্রাসার সুপার রফিকুল ইসলাম, পুরোহিত রবিন পিপলাই, হিন্দু নেতা নিত্যানন্দ মাঝি, কাজী নুর মোহাম্মদ, এনজিও প্রতিনিধি অমরিও সরকার,  ইউপি সদস্যা হাফিজা ইয়াসমিন, নারী নেত্রী পেয়ারা ফারুখ বখতিয়ার, কলেজ ছাত্রী কল্পনা বাড়ৈ, স্কুল ছাত্রী সুমাইয়া জান্নাত প্রমূখ।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »