আর্কাইভ

নলছিটির চারটি ইউনিয়ন কেটে নেয়ার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

আহমেদ আবু জাফর, ঝালকাঠি ॥  জেলার নলছিটি উপজেলা থেকে চারটি ইউনিয়ন কেটে নেওয়ার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে নলছিটি উপজেলা রক্ষা কমিটির ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল ও নির্বাচন কমিশনের স্মারক লিপি দেয়া হয়েছে। রোববার বিকেল ৪ টায় ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক মো. শাখাওয়াত হোসেন এবং জেলা নির্বাচন অফিসার খান আবি শাহানুর খান এর কাছে পৃথকভাবে ১০ দফা দাবীতে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। এদিকে সকাল ১১টায় চারটি ইউনিয়নের প্রায় ৫ সহস্রাধিক নাগরিক নলছিটি উপজেলা রক্ষা কমিটির ব্যানারে প্রথমে নলছিটি শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিল শেষে তারা স্থানীয় চায়না মাঠে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। বিশাল মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ অংশ নেয়। ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন নলছিটি উপজেলা রক্ষা কমিটির আহবায়ক মিঞা আহমেদ কিবরিয়া, নলছিটি পৌর মেয়র মো. মজিবুর রহমান, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার অহিদুল ইসলাম বাদল, সুবিদপুর ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম শাহীন, মোল্লারহাট ইউপি চেয়ারম্যান আবদুস ছালাম। এসময় বক্তারা নলছিটি উপজেলাকে দিখন্ডিত করার জন্য কুচক্রী মহলের ষড়যন্ত্র রুখে দেওয়ার শপথ করেন। প্রয়োজনে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণার হুমকি দেন। আগামী ২৫ এপ্রিল ঢাকা নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শণের ঘোষনা দেয় নলছিটি উপজেলা রক্ষা কমিটি। পরে তারা ১০ দফা দাবি সম্বলিত স্মরকলিপি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাচন কর্মকর্তার মাধ্যমে নির্বাচনে কমিশনে প্রেরণ করেন।
সম্প্রতি ঝালকাঠি-২ আসন থেকে নলছিটি উপজেলার ৪টি ইউনিয়ন কেটে ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঠালিয়ায়) আসনে নেয়ার জন্য আবেদন করে কয়েকজন নাগরিক। ওই আবেদনের বিপরীতে পাল্টা আবেদনও করা হয় নির্বাচন কমিশনে। আগামী ২৫ এপ্রিল প্রধান নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে ঝালকাঠি-১ ও ঝালকাঠি-২ আসনের সীমানা নির্ধারন বিষয়ক আবেদনের শুনানী অনুষ্ঠিত হবে বলে জানাগেছে।
একটি চক্র উপজেলার ৪টি ইউনিয়নকে কেটে রাজাপুর-কাঠালিয়ার সাথে অন্তর্ভূক্ত করার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। ইউনিয়নগুলো হল কুশংগল, সুবিদপুর, মোল্ল¬ারহাট ও রানাপাশা। ইউনিয়ন চারটিতে প্রায় ৬০ হাজার নাগরিকের বসবাস। তারা কখনও কোন কাজে রাজাপুরের সাথে সম্পৃক্ত ছিল না। বিষখালী নদী থেকে আলাদা এ ইউনিয়ন চারটির নাগরিকরা কোন কিছুর বিনিময়ে রাজাপুর-কাঁঠালিয়ার সাথে যাবেন না বলে ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে। অপরদিকে উপজেলাটিকে রক্ষার জন্য ঝালকাঠি নাগরিক ফোরামের পক্ষ থেকে আলাদা দাবী করা হয়েছে। দাবী হিসেবে নাগরিক ফোরামের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ঝালকাঠি সদর উপজেলা থেকে শেখেরহাট ও ধানসিঁড়ি ইউনিয়ন দুটিকে কেটে রাজাপুরের সাথে সামজ্ঞস্য করা উচিত। কারন হিসেবে বলা হয়, রাজাপুর থেকে এ দুটি ইউনিয়ন খুব কাছে এবং ঝালকাঠি সদর থেকে গাবখান নদী থেকে বিচ্ছিন্ন। তাই এ দুটি ইউনিয়নকে নিয়ে ভোটার সমন্বয় করা সময়োপযোগি।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »