আর্কাইভ

অপসোনিন কোম্পানী ॥ বরিশালে মালিক পক্ষ ও শ্রমিদের সংঘর্ষ

স্টাফ রিপোর্টার ॥  বিনা নোটিশে চাকুরিচ্যুত করার ঘটনায় বরিশাল নগরীর গ্লোবাল অপসোনিন ফার্মাসিটিক্যাল কোম্পানী লিমিটেডের মালিক পক্ষ ও শ্রমিকদের মধ্যে আজ বুধবার সংঘর্ষে কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত কোম্পানীর হিউমান রিচার্জ অফিসার আব্দুল্লাহ আল মাসুদ ও হাবিবুর রহমান চৌধুরীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরবর্তীতে শ্রমিকেরা নয় দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে অনিদৃষ্টকালের জন্য কর্মবিরতী শুরু করেছেন।

বিক্ষুব্ধ শ্রমিক মনির হাওলাদার, মনির খান, রুবেল হাওলাদার ও লাবলু হাওলাদার জানান, তারা সকাল ছয়টার দিকে কর্মস্থলে প্রবেশ করতে চাইলে দারোয়ান তাদের প্রবেশে বাঁধা দিয়ে বলে তাদের চাকুরিচুত্য করা হয়েছে। পরবর্তীতে তারা জোরপূর্বক ভেতরে প্রবেশ করে বিষয়টি অন্যান্য শ্রমিকদের জানায়। সকাল সাড়ে সাতটার দিকে সকল শ্রমিকেরা একত্রিত হয়ে কোম্পানীর মধ্যে বিক্ষোভ শুরু করেন। এসময় মালিক পক্ষের লোকজনে তাদের বাঁধা দিলে উভয়ের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়েছে। পরবর্তীতে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকেরা তাদের নয় দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে অনিদৃষ্টকালের জন্য কর্মবিরতী শুরু করেছেন। তাদের এ দাবি পুরন না হওয়া পর্যন্ত তারা কর্মস্থলে ফিরবেন না বলেও হুমকি দেন।

দাবিগুলো হচ্ছে-কোন শ্রমিককে অহেতুক বিনা নোটিশে চাকুরিচ্যুত করা যাবে না, সরকারি ছুটি ও হরতালের দিন দ্বিগুন হাজিরা নিশ্চিত করতে হবে, প্রতি মাসে নাস্তার জন্য ১২’শ টাকা দিতে হবে, কোন শ্রমিক কর্মস্থলে মারা গেলে বা অসুস্থ হলে তার সকল খরচ কোম্পানীকে বহন করতে হবে, নতুন শ্রমিকদের ১৫দিনের মধ্যে স্থায়ী চাকুরীর সুবিধা ও সকল শ্রমিকদের নুন্যতম চার হাজার টাকা বেতন নির্ধারন করতে হবে, বছরে এক হাজার টাকার ডকুমেন্ট এবং কর্মস্থলে মোবাইল ফোন নিতে দিতে হবে, অসুস্থ্যজনিত কারনে কর্মস্থলে উপস্থিত হতে না পারলে বেতন থেকে টাকা কর্তন করা যাবে না।

বিক্ষুব্ধ শ্রমিকেরা অভিযোগ করে বলেন, মহান মে দিবসের দিনেও তাদের দিয়ে মালিক পক্ষ কাজ করিয়েছে। এর বিনিময়ে তাদের অতিরিক্ত কোন অর্থ দেয়া হয়নি। এ ব্যাপারে কোম্পানীর হিউমান রিচার্জ অফিসার আব্দুল্লাহ আল মাসুদ বলেন, কোন শ্রমিককে চাকুরিচ্যুত করা হয়নি। তবে যে চার জনকে গেট দিয়ে ঢুকতে বাঁধা দেয়া হয়েছিলো সেটা মালিকের নির্দেশে করা হয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »