আর্কাইভ

আগৈলঝাড়ার ধর্ষিতা যুবতী এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছে

ওমর আলী সানি, আগৈলঝাড়া ॥  মামলা দায়েরের চারদিন পরেও পুলিশ ধর্ষককে গ্রেফতার করতে পারেননি। উল্টো মামলা উত্তোলনের জন্য ধর্ষকের পরিবার ও তাদের ভাড়াটিয়া লোকজনদের হুমকির মুখে গত দু’দিন থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছে ধর্ষিতা যুবতী। ঘটনাটি বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বাগধা ইউনিয়নের আমবৌলা গ্রামের।

আজ রবিবার দুপুরে আত্মগোপনে থাকা ওই গ্রামের লুকু বৈদ্যর কন্যা ও ধর্ষিতা যুবতী (১৯) মোবাইল ফোনে জানান, বিয়ের প্রলোভন ও বিদেশ নেয়ার কথা বলে একই গ্রামের সেকান্দার গাইনের প্রবাসী পুত্র শরিফুল ইসলাম তাকে বিভিন্ন সময় একাধিকবার ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে বিয়ের জন্য শরিফুলকে চাপ প্রয়োগ করা হলে সে নানা তালবাহানা শুরু করে। গত ১৮ মে বিয়ের দাবিতে ওই যুবতী ধর্ষকের বাড়িতে অনশন শুরু করে। ওইসময় স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালীরা বিয়ের আশ্বাস দিয়ে য্বুতীকে তার বাবার বাড়িতে দিয়ে আসে। পরবর্তীতে বিষয়টি ধামাচাপ দেয়ার জন্য প্রভাবশালীরা মরিয়া হয়ে ওঠে। উপায়অন্তুর না পেয়ে ধর্ষিতা যুবতী লিলা বৈদ্য বাদি হয়ে গত ২৩ মে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর থেকেই ধর্ষক পালিয়ে বিদেশ যাওয়ার জন্য আত্মগোপন করে। এ সুযোগে ধর্ষকের পরিবার ও তাদের ভাড়াটিয়া লোকজনে মামলা উত্তোলনের জন্য ধর্ষিতা ও তার পরিবারকে বিভিন্ন ধরনের হুমকিসহ ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। তাদের অব্যাহত হুমকির মুখে গত দু’দিন থেকে ধর্ষিতা যুবতী পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

এ ব্যাপারে ধর্ষণ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আগৈলঝাড়া থানার এস.আই মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, মামলা দায়েরের পর ধর্ষিতা যুবতীকে ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশের জোর প্রচেষ্ঠা অব্যাহত রয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »