আর্কাইভ

সিটি নির্বাচন : বরিশালে আনারস পঁচাতে, টেলিভিশন আটকাতে তৎপর মামুন

হাসান মাহমুদ, বিশেষ প্রতিনিধি ॥  আর মাত্র আট দিন বাকি। না এটা কোনো লটারির টিকেটের ড্র নয়। বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের (বিসিসি) নির্বাচনের আর মাত্র আটদিন বাকি। তাই প্রচার-প্রচারণায় উত্তাল হয়ে উঠেছে পুরো নগরী। নির্বাচনী জ্বরে কাঁপছে সবাই। সময় ঘনিয়ে আসায় অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগ আর কাঁদা ছোড়াছুড়ির মধ্যদিয়ে একেকটি দিন অতিবাহিত করছেন প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থীরা। কথার খই ফুটিয়ে কেউ মূল প্রতিদ্বন্ধী মেয়র পদপ্রার্থী আলহাজ্ব শওকত হোসেন হিরনের টেলিভিশন প্রতীক আটকাতে আবার কেউবা উন্নয়নের চাঁপায় পৃষ্ঠ করে আহসান হাবিব কামালের আনারস পঁচাতে চাইছেন। এরমধ্যে বেশ সুবিধাজনক অবস্থানেই রয়েছেন স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী মাহমুদুল হক খান মামুন। তিনি দোয়াত কলম মার্কা নিয়ে পুরো নগরীতে জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে দিতে প্রচার-প্রচারনার পাশাপাশি সর্বত্র ব্যাপক গণসংযোগ ও মতবিনিময় সভা করে যাচ্ছেন।

 
সব মিলিয়ে নিত্যনতুন ইস্যু যোগাচ্ছে ভোটের আলোচনার খোরাক। কে সৎ, কে অসৎ. কে কতটা নগরপ্রেমী। কার চরিত্র ভালো, কার নয়। কে যোগ্য, কে অযোগ্য, কার আমলে নগরীতে উন্নয়ন হয়েছে, কার সময়ে হয়নি, এসব বিষয়ে বাকযুদ্ধ করে ভোটারদের চায়ের আড্ডা বেশ ভালোই জমে উঠেছে। প্রবীণেরাও এলাকার স্টলে চায়ের কাপে তুলছেন আলোচনার ঝড়। আর নবীনরা মেতেছেন মাঠে।

মহাজোট সমর্থিত বরিশাল সম্মিলিত নাগরিক কমিটির মেয়র পদপ্রার্থী আলহাজ্ব শওকত হোসেন হিরন (টেলিভিশন) আজ বৃহস্পতিবার ভোটার ও তার কর্মী-সমর্থকদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, প্রতিপক্ষের লোকজন টেলিভিশনের গণজোয়ার দেখে মরিয়া হয়ে উঠেছে। তারা পরিস্থিতিকে উত্তপ্ত করে তুলছে। নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি তৈরি করে হীন স্বার্থ উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। তিনি গতকাল নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক গণসংযোগ করেছেন। এসময় তার সাথে অন্যান্যদের মধ্যে জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট তালুকদার মোঃ ইউনুস-এমপি, নাগরিক পরিষদের সদস্য সচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহাবুব উদ্দিন আহমেদ-বীর বিক্রম, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও বর্তমান অগ্রনী ব্যাংকের পরিচালক এ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি সাইদুর রহমান রিন্টুসহ ১৪ দলের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও একইদিন জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির নেতৃবৃন্দরা টেলিভিশনের পক্ষে ব্যাপক গণসংযোগ করেছেন।

বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ১৮ দল সমর্থিত জাতীয়তাবাদী নাগরিক পরিষদ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী আহসান হাবিব কামাল (আনারস) প্রতীক নিয়ে ভোট যুদ্ধে মাঠে নেমেছেন। তার পক্ষে আজ বৃহস্পতিবার নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক গণসংযোগ করেছেন বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মজিবর রহমান সরোয়ার-এমপি, বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান, এবায়দুল হক চাঁন, সাবেক এমপি আবুল হোসেন খান, বিএনপি নেতা আব্দুর রহমান তপন। বেগম সেলিমা রহমান সকল মতভেদ ভুলে গিয়ে ঐক্যবদ্ধ ভাবে ১৮ দলীয় জোটের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সমর্থিত প্রার্থী আহসান হাবিব কামালকে বিজয়ী করার জন্য নেতা-কর্মীদের আহবান করেন। এবায়দুল হক চাঁন তার কর্মী সমর্থকদের আনারস প্রতীকের পক্ষে কাজ করার আহবান জানিয়ে বলেন, দলীয় চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নির্দেশে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

অপরদিকে সুবিধাজনকস্থানে থাকা অপর স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী মাহমুদুল হক খান মামুন জোট-মহাজোটের কাঁদা ছোড়াছুরির মাঝে বেশ স্বাচ্ছন্দেই গণসংযোগ করে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, দু’জোটের দু’মেয়র পদপ্রার্থীরাই দীর্ঘদিন নগর ভবনে লুটপাট চালিয়েছে। ফলে তারা এখনো সেই চেয়ারের কথা ভুলতে পারছে না। তাই গুজব ছড়িয়ে, মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে ভোটারদের বিভ্রান্ত করে আবারও নগর ভবন দখল নেয়ার প্রয়াস চালাচ্ছে। তাই তাদের কাছ থেকে সাবধান থাকার জন্যও তিনি সাধারন ভোটারদের কাছে আহবান করেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »