আর্কাইভ

গৌরনদীতে সরকারি দলের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত-২০

এনায়েত হোসেন মুন্না, স্টাফ রিপোর্টার ॥  পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার টরকী বন্দরে সোমবার রাতে সরকারি দলের দু’গ্রুপের মধ্যে দু’দফা হামলা-পাল্টা হামলা ও সংঘর্ষে উভয় গ্রুপের কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। এ সময় দুটি ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান ও একটি বসত ঘর ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও আহত সূত্রে জানা গেছে, টরকী বন্দরের ব্যবসায়ী মাসরুল তালুকদারের কর্মচারী আনোয়ার হোসেন মীরের কাছ থেকে এক বছর পূর্বে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা ধার নেয় টরকীর চর এলাকার বাসিন্দা ও পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সহসভাপতি মোশারফ হাওলাদার। পাওনা টাকা ফেরত চাওয়াকে কেন্দ্র করে আ’লীগ নেতা মোশারফ হোসেন ও আনোয়ারের পক্ষালম্বনকারী উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মাহাবুবুর রহমান কুট্টির মধ্যে গত শুক্রবার বাকবিতন্ডা বাঁধে।

এ ঘটনার জের ধরে মোশারফের সমর্থক যুবলীগ নেতা আলমাদানী সিকদারের নেতৃত্বে ক্ষমতাসীন দলের ১০/১২ জন নেতা-কর্মীরা সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে টরকী বন্দরের ছাগল হাটে বসে যুবলীগ নেতা কুট্টির ওপর হামলা চালায়। রাত নয়টার দিকে আলমাদানী সিকদারের নেতৃত্বে তার ৪০/৪৫ জন সহযোগীরা দেশীয় ধারালো অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে টরকী বন্দরে মহড়া দিয়ে টরকীর চর এলাকার যুবলীগ নেতা কুট্টির বসত ঘর, ইউনুস বেপারীর হোটেল, খয়ৈম মোল্ল¬ার ভূষির দোকানে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে। এ সময় গোটা টরকী বন্দরের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দেয়। এ ঘটনার জেরধরে উভয় গ্র“পের মধ্যে দু’দফা হামলা পাল্টা হামলা ও সংঘর্ষে উভয়গ্ গ্রুপের কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়। গুরুতর আহত যুবলীগ নেতা কুট্টি, লিটু খান, পাওনাদার আনোয়ার হোসেন মীর, হুমায়ুন খান, প্রতিপক্ষ আলমাদানী সিকদার, মোশারফ হাওলাদার, লাভলী বেগম, সোহেল সিকদার, সোহাগ প্যাদা, সিরাজ প্যাদাকে গৌরনদী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে গৌরনদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম বলেন, খবর পেয়ে থানা ও টরকী বন্দর ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ ঘটনায় থানায় কেউ অভিযোগ দায়ের করেননি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্থানীয় একটি সূত্রে জানা গেছে, বিষয়টি আপোষ মীমাংসার জন্য উপজেলা আ’লীগের সভাপতি এইচ.এম জয়নাল আবেদীন উভয় পক্ষকে নিয়ে সালিসের বৈঠকের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »