আর্কাইভ

গাইবান্ধায় জেল পলাতক আসামি রংপুরে গ্রেফতার

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল, গাইবান্ধা ॥  গাইবান্ধার কোর্ট হাজত থেকে জেলখানায় নেয়ার সময় পালিয়ে যাওয়া খুনের মামলার আসামি পাপুল শেখকে (৩২) রংপুর থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সদস্যরা।সোমবার ভোরে রংপুর শহরের শাপলা চত্বরের পাশে নুরপুর এলাকার একটি বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।পাপুল পলাশবাড়ি উপজেলার গোয়ালপাড়া গ্রামের তাজুল ইসলামের ছেলে।ডিবি পুলিশের এসআই অশোক সিংহ জানান, খুন ও ডাকাতিসহ তিনটি মামলার আসামি পাপুল শেখ। তাকে ২৩ জুন আদালতে শুনানি শেষে বিকেলে প্রিজন ভ্যানে করে জেলখানায় নিয়ে যাওয়ার সময় সুকৌশলে সে পালিয়ে যায়।ওই ঘটনায় দায়িত্বরত কনস্টেবল ছালেক উদ্দিন ও বিজয় কুমার রায়কে কর্তব্য অবহেলার দায়ে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়।

 

চোয়ানীতে সয়লাভ

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলা মধ্যমনি দক্ষিণ বন্দরে চোয়নী মদের ঘ্রাণে মৌ মৌ করছে। স্থাণীয় পুলিশ প্রশাসন কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহন না  করে চোয়ানী সম্রাগ্রী বাদশার স্ত্রী জোবে’র সঙ্গে মাসোহারা চুক্তি বদ্ধ হয়েছেন বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করছেন। ফলে মাদক বিক্রেতাদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বেড়েই চলছে মাদকসেবীর সংখ্যা। এতে দক্ষিণ বন্দরের অভিভাবক ও সচেতন মহল চরম উদ্বিগ্ন হলেও থানা পুলিশ কোন জোবে’র বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না মর্মে এলাকায় অভিযোগ উঠেছে জোবে’র নেতৃত্বে সদরের দক্ষিণ বন্দরে ২৪ ঘন্টায় দেশীয় চোলাই মদ ও চোয়ানী বিক্রি অব্যাহত রয়েছে। বলা চলে দক্ষিণ বন্দরের চোয়াণী দিয়ে উপজেলাসহ গোটা জেলায় সরবরহ সহজ লভ্য করা হচ্ছে । আর এর নেপথ্যে রয়েছে সরকার দলীয় এক ছাত্র নেতার হাত। অবাধে চোয়াণী বিক্রি আর সেবনের কারণে মাদকাসক্তরা সংগঠিত হয়ে ছোট খাট অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ছে। মাদক বিক্রেতা ও মাদকাসক্তরা এতটাই সংগঠিত যে তাদের কে মাদকের ব্যাপরে কেউ কথা বললেই তাদেরকে হতে হয় অপমাণিত ও লাঞ্চীত । চোয়াণী সম্রাগ্রী জোবে’র সাথে থানা পুলিশের মাসোহারার ভিত্তিতে সখ্যতা গড়ে উঠায় চোয়াণী বিক্রেতারা অনেকটাই দাম্ভিকতার সাথেই এ কর্মকান্ড অব্যাহত রেখেছে মর্মে অভিযোগের জানা গেছে। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম পিপিএম বলেন’ জোবে কে তাকে চিনি না তবে মাদক বিক্রি বন্ধের অভিযান অব্যহত রয়েছে।

 

অপহরণ মামলায় ছেলে জেল হাজতে ॥ শিক্ষিকা মা পলাতক

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে এক নাবালিকা ছাত্রী অপহরণের মামলায় ছেলে জেল হাজতে দিন কাটাচ্ছে। অপরদিকে একই মামলার আসামী চাচিয়া নওহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা জিন্নাতুল ফেরদৌসী পলাতক রয়েছে। মামলা সূত্রে জানা গেছে, সুন্দরগঞ্জ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আঃ কুদ্দুস সরদারের নাবালিকা কন্যা রেজওয়ানা রাইসুল বাধন (পুতুল) কে গত ১৯ জুন রাতে উক্ত শিক্ষিকার পরামর্শে তার ছেলে জিকো মিয়া অপহরণ করে নিয়ে যায়। এরপর মেয়েকে উদ্ধারের জন্য অনেক অনুসন্ধান চালিয়ে না পেয়ে পিতা বাদী হয়ে থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করে। এ অবস্থায় পুতুলকে নিয়ে জিকো অজ্ঞাত স্থানে পালাবার সময় গত ২৮ জুন নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলায় র‌্যাবের হাতে আটক হয়। এরপর সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে আটক দু’জনকে হস্তান্তর করলে পুলিশ গাইবান্ধা আদালতে প্রেরণ করেন। আদালতে কন্যা পুতুল পিতার হেফাজতে চলে যায়। আর জিকোকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। পুত্র জিকোকে সহায়তার দায়ে আসামী মা জিন্নাতুল ফেরদৌসী বর্তমান কর্মস্থলে উপস্থিত না হয়ে ১২ দিন থেকে পলাতক রয়েছে। উপজেলা শিক্ষা অফিস সুত্র জানায়, জিন্নাতুল ফেরদৌসী বর্তমানে স্কাউটস প্রশিক্ষণে গাইবান্ধায় রয়েছে।

ম্যাগনেট পিলার উদ্ধার

রংপুরে দু’টি প্রাচীন ম্যাগনেট পিলার উদ্ধার। সোমবার রংপুর নগরীর ফোর ল্যান্ড সড়ক নির্মাণ কাজের ড্রেন খননের সময় সাঈদ বেকারির সামনে থেকে দু’টি প্রাচীন ম্যাগনেট পিলার দেখতে পায় কর্তব্যরত এক লেবার। পিলাটি দেখতে শত শত লোক ভিড় জমায় ঘটনা স্থলে। পরে  নবাবগঞ্জ ফাঁড়ীর হাবিলদার তোফায়েল পিলা দু’টি উদ্ধার করে রংপুর কোতয়ালী থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। বিষয়টি নিয়ে গোটা রংপুরের আলোড়ন সৃষ্টি হয়।

 

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »