আর্কাইভ

অনেক শিক্ষার্থী জাতির জনকের নাম বলতে পারে না

অনেক শিক্ষার্থীরা জাতির জনক কে তা বলতে পারে না। আমি এখানে আসার পথে একটি স্কুলে গিয়ে শিশু শিক্ষার্থীদের কাছে জানতে চেয়েছিলাম, আমাদের জাতির জনকের নাম কি। তারা উত্তর দিতে পারেনি। গতকাল রবিবার সন্ধ্যায় বরিশাল সার্কিট হাউজে প্রাথমিক শিক্ষার গুণগত উন্নয়ন শীর্ষক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উল্লেখিত কথাগুলো বলেছেন।

প্রতিমন্ত্রী শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে বলেন, শিশুদের প্রতি আরো আন্তরিক হয়ে সঠিক ইতিহাস তুলে ধরতে হবে। তিনি উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদানসহ সার্বিক বিষয়ে তদারকির আহ্বান করেন। প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, আগামি এক বছরের মধ্যে দেশের সকল টিন শেডের প্রাথমিক বিদ্যালয় বাদ দিয়ে পাকা ভবন করা হবে। সরকার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা কার্যক্রম উন্নয়নের জন্যে ইতোমধ্যে ৩১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। ২০১১ সালের মধ্যে নিরক্ষরমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে তিনি বলেন, ইতিমধ্যে দেশে ৯৮ শতাংশ নিরক্ষর মুক্ত হয়েছে।

বরিশালের জেলা প্রশাসক এস.এম আরিফ-উর-রহমানের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক এস.এম ফারুক, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হারুন নকিব, বি.এম কলেজের অধ্যক্ষ ড. ননী গোপাল দাস, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মাহেব হোসেন, হিজলার উপজেলা চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ টিপু ও ১০ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাগণ, শিক্ষা কর্মকর্তা এবং শিক্ষকবৃন্দ। এর আগে শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ঝালকাঠি সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে অপর এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »