আর্কাইভ

সাবেক ইউপি সদস্যকে গ্রেফতারে প্রতিবাদ বিক্ষোভ

প্রতিবাদে গতকাল রবিবার সকালে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়কে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও স্মারকলিপি প্রদান করেছে বিক্ষুদ্ধ স্থানীয় জনতা। স্থানীয়রা ফুঁসে ওঠায় পুলিশ খুব ভোরেই আটককৃতকে জেল-হাজতে প্রেরণ করেছে।

উপজেলার চরদৌলতখাঁ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান নোয়াবালী মিয়া ও হারুন-অর-রশীদ হাওলাদার জানান, ‘শনিবার দুপুরের পর থেকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের যোগসাজশে পুলিশের একটি দল এলাকার মানুষদের ধাওয়া দিয়ে গ্রাম ছাড়া করে এবং স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য ও চরফতেবাহাদুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ওয়াজেদ আলী সরদারকে গ্রেফতার করে। স্বেচ্ছাচারী ও অনিয়মতান্ত্রিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে সকাল ৮টায় প্রায় ৫ থেকে ৬হাজার স্থানীয় মানুষ বিক্ষোভ সমাবেশ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেছে’।

আওয়ামীলীগরে চরদৌলতখাঁ ইউপির শাখা কমিটির সভাপতি মাষ্টার ফজলুর রহমান জানান, ‘কয়েকদিন পূর্বে প্রতিপক্ষের একটি মামলায় ওয়াজেদ আলী সরদারকে ষরযন্ত্রমূলকভাবে আসামী করায় হাইকোর্ট থেকে জামীনে এসেছেন। এভাবে তাকে এখন গ্রেফতার করা হাইকোর্টকে অবমাননার শামীল’।

স্থানীয় যুবলীগের সভাপতি আঃ হালিম মোল্লা বলেন, ‘পুলিশের এমন কর্মকান্ডে আমরা হতবাক। এলাকায় এখনো বিশৃঙ্খলা বিরাজ করছে’।

কালকিনি থানার সহকারী পরিদর্শক ও তদন্তকারী কর্মকর্তা আজিজুর রহমান জানান, ‘ডাকাতী মামলায় সন্দেহাতীত ও সবেমাত্র দায়েরকৃত মারামারি মামলায় তাকে গ্রেফতার করে ১দিনের রিমান্ড চেয়ে জেলে পাঠানো হয়েছে’।

পুলিশের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারী ও অনিয়মতান্ত্রিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে স্থানীয়দের বিক্ষোভ সমাবেশের কথা অস্বীকার করে কালকিনি থানার অফিসার ইনচার্জ একে এম শাহীন মন্ডল জানান, ‘থানা থেকে আসামী ছিনিয়ে নেয়ার জন্য গ্রেফতারকৃত ব্যক্তির আত্মীয়-স্বজনরা বিশৃঙ্গলা সৃষ্টি করতে চেয়েছিল’।

আরও পড়ুন

Back to top button