আর্কাইভ

ব্যপক হারে বেড়ে গেছে ছিচকে চোরের উপদ্রব

রেকর্ড সংখ্যক। এ সকল চুরির ঘটনায় চোর ধরা পরলেও ক্ষতিগ্রস্থরা আইনি জটিলতায় না গিয়ে চোরকে উত্তম মধ্যম দিয়ে ছেরে দেয়। প্রতি বছরের তুলনায় মাত্র পাঁচ মাসের মধ্যে রেকর্ড সংখ্যক চুরি হয়েছে পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডে। এর মধ্যে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে সুর করে স্বর্ন থেকে বাড়ির হাড়ি পাতিল পর্যন্ত বাদ দেয়নি এই ছিচকে চোরেরা। এদের মধ্যে দু-একটি ঘটনা চুরি ও ডাকাতি হিসেবে পুলিশের নথি ভুক্ত হলেও পুলিশ কাউকেই গ্রেফতার করতে পারেনি। ৬নং ওয়ার্ডের সাধারন মানুষ এতই উদার ওমএস এর চাল চুরির সময় হাতে নাতে ধরেও পুলিশকে না জানিয়ে ছেরে দেয়। উল্লেখ্য ৬নং ওয়ার্ডে ওএমএস এর ডিলার সাবেক কমিশনার হওয়ায় তাকে ছেরে দেয়া হয়েছে। এ নিয়ে এলাকাবাশীর সকলেই আতংক রাত যাপন করছে।

গতকাল রাত সাড়ে ৯ টায় আলমগির উকিলের বাড়িতে নির্মান কাজ করে যে শ্রমিক তার নেতৃত্বে একটি চোর চক্র নির্মান সামগ্রিতে ব্যবহারের জন্য কেটে রাখা রড চুরি করতে এসে হাতে নাতে ধরা পরে। এসময় দু চোর পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। এলাকাবাশির হাতে আটক কৃত চোর তার সীকারউক্তিতে অপর সহযোগিদের নাম প্রকাশ করে। রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত চোর নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহন হয়নি।

BZ Sabuj-Gournadi.com

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »