আর্কাইভ

টেন্ডার জমা দিতে ছাত্রলীগের বাঁধা-ঠিকাদার লাঞ্ছিত

স্বাস্থ্য বিভাগের ১৮ লাখ টাকার সংস্কার কাজের দরপত্র জমা দিতে পারেননি সাধারন ঠিকাদাররা। সেন্ট্রাল মেডিকেল ম্যানেজমেন্ট ইউনিট অধিদপ্তরের (সিএমএমইউ) বরিশাল কার্যালয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার দরপত্র জমাদানের শেষ দিনে কয়েকজন ঠিকাদারকে লাঞ্ছিত করে তারা। এ সময় ৩টি দরপত্র ছিনতাই হয়েছে বলে ঠিকাদাররা অভিযোগ করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সিএমএমইউ’র অধীনে বিভাগের ছয় জেলায় ২৬ গ্র“পের ৯৬ লাখ ২৪ হাজার টাকার দরপত্র আহবান করে। এর মধ্যে বরিশাল জেলায় নগরীর কালীবাড়ী সড়কে মা ও শিশুকল্যাণ কেন্দ্র সংস্কারের জন্য পাঁচ লাখ টাকা এবং জেনারেল হাসপাতালের গভীর নলকুপ স্থাপনের জন্য ১২ লাখ টাকার কাজ রয়েছে। গতকাল ঐ দুটি কাজের দরপত্র জমা দিতে ঠিকাদাররা সিএমএমইউ’র কার্যালয়ে গেলে প্রধান ফটকে তাদের বাধা দেয় ছাত্রলীগ নামধারী কতিপয় যুবক।  

ঠিকাদার ফারুক হোসেন জানান, দরপত্র জমা দিতে গেলে ছাত্রলীগ পরিচয়দানকারীরা তাদের বাঁধা দেয়। এ সময় তিনটি দরপত্র ছিনিয়ে নেয় সরকারী বরিশাল কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক চঞ্চল দাস পাপ্পার নেতৃত্বে¡ ছাত্রলীগ কর্মী সুজন, সজল ও তপন। দরপত্রের  সঙ্গে ৩৬ হাজার টাকার তিনটি পে-অর্ডারও তারা নিয়ে যায়। এর প্রতিবাদ করলে তারা ঠিকাদার ফারুক হোসেনকে মারধর করে।

চঞ্চল দাস পাপ্পা জানান, কাজ দুটি সিটি কর্পোরেশনের ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে হওয়ায় সেখানকার ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা সেটি পেতে আগ্রহ জানিয়েছে। তাই বরিশাল জেলার ঠিকাদারদের ঐ দুই গ্র“পের দরপত্র জমা না দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। এ কারনে বেশীরভাগ ঠিকাদার দরপত্র জমা দেননি। ঠিকাদারের দরপত্র ছিনতাইয়ের কোন ঘটনা ঘটেনি।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »