আর্কাইভ

ঝড় জলোচ্ছ্বাসে কোটি টাকার ক্ষতি

ও একটানা বর্ষণে কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় এখনও মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে। বিভিন্ন সুত্রে প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে ঝড়-জলোচ্ছ্বাসে গ্রামীন সড়ক, বেড়িবাঁধ, মাছের ঘের তলিয়ে, ঘর-বাড়ী ভেঙ্গে, জলমগ্ন ফসলের মাঠ মিলিয়ে কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া শেষে গত মঙ্গলবার বিকেলে পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও কলসকাঠী, কবাই, দূর্গাপাশা, ফরিদপুর, ভরপাশা ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রাম পানির নিচে তলিয়ে আছে। কলসকাঠী ইউনিয়নের সাদিশ আমতলী, চর বাগদিয়া, নারাঙ্গল, দক্ষিন সাদিশ, ল..ঘাট সহ বিস্তীর্ণ এলাকায় পানিবন্দি হয়ে আছে বিপুলসংখ্যক মানুষ। সবচেয়ে করুন অবস্থা বাঁেধর বাইরে বসবাসকারী অসহায় পরিবারগুলোর। থাকার জায়গার অভাবে একই আঙ্গিনায় মানুষ ও গবাদি পশু বাস করছে। ইউপি জাতীয় পার্টি সভাপতি এম.এ বাছেদ হাওলাদার বাচ্চু বলেন, পানিবন্দি অসহায় মানুষগুলোর জন্য পর্যাপ্ত ত্রান সহায়তা দরকার। মাননীয় সংসদ সদস্য এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার ও নাছরিন জাহান রতনার নির্দেশে ইতিমধ্যেই আমরা জাপা নেতৃবৃন্দ ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িযেছি তাদের দুর্দশা লাঘবে।

এ প্রসঙ্গে আলাপকালে জাতীয় পার্টি মহাসচিব স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার জানান, পানিবন্দি অসহায় মানুষগুলোকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে তিনি ইতিমধ্যে উপজেলা প্রশাসন এবং জাপা নেতাদের নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়াও ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের নগদ অর্থ সহায়তা দিতে তিনি ক্ষতিগ্রস্তদের একটি তালিকা করেছেন বলে জানান।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »