আর্কাইভ

ঈদ বাজার – গৌরনদীর শিশু-কিশোরদের মন কেড়েছে পাগলু ও ঝিলিক

 বাহারি নামের সব পোশাক। প্রতিটি বিপণি বিতানের কিডস কর্নারে থরে থরে সাজানো হয়েছে এসব পোশাক। তবে এবছর বরিশালের গৌরনদী ও আগৈলঝাড়া উপজেলায় শিশু-কিশোরদের মন কেড়েছে পাগলু ও ঝিলিক নামের পোষাক দুটি।

উপজেলার অধিকাংশ মার্কেট ঘুরে ক্রেতা-বিক্রেতাদের সাথে আলাপ কালে জানা গেছে, এবছর বাহারি নামের পোষাকের মধ্যে রয়েছে মেয়েদের ফ্রক, মিনি স্কার্ট, থ্রি পিস, লেহেঙ্গা, পাগলু, ঝিলিক, দাবাং, কারিনা, বডিগা, গোপী, চুলি, সোহানা, শিলা, কলকা, মুন্নী, রানি, শিলা, ক্যাটরিনা, মাজাক্কালি, শাকিরা, স্পাইস গার্ল। আর ছেলেদের টি শার্ট, পাঞ্জাবি, ফতুয়া, শর্ট পাঞ্জাবি। উপজেলার টরকী বন্দরের খান গার্মেন্টসের স্বত্বাধীকারি নুরুজ্জামান খান জানান, শরীরের সঙ্গে মিশে যাওয়া (টাইট) নেটের বিভিন্ন পোশাক শিশুদের বেশি পছন্দ। এ তালিকায় রয়েছে ডেনিম জিন্সও। তিনি আরো জানান, সুপার স্টার নায়িকাদের নামে তৈরি করা এসব পোশাকের দাম তার দোকানে ১২ শ’ থেকে ৩ হাজার টাকা পর্যন্ত। তবে এবার বিক্রির শীর্ষ স্থান দখল করে আছে পাগলু ও ঝিলিক।
আশোকাঠী গ্রামের অভিভাবক মমতাজ আহম্মেদ মমোসহ একাধিক অভিভাবকেরা জানান, বাচ্চাদের জন্য পোশাক কিনতে এসে তারা এখন হিমশিম খাচ্ছেন। ছোট হলেও শিশুদের পোশাকের দাম এবার অনেক চড়া।

এছাড়াও গৌরনদী বন্দরে ভাই ভাই বস্ত্র বিতান, ময়ুরী গার্মেন্টস, বাটাজোর বাপ্পী ফ্যাশন, টরকী বন্দরের সৌখিন গার্মেন্টস, সিটি খান গার্মেন্টসে এবার পাগলু ও ঝিলিক নামের পোষাক বিক্রি হচ্ছে বেশি। দোকানিরা জানিয়েছেন, ঈদের জন্যই দামটা একটু বেশি হয়। ঈদের জামা-কাপড়ে নানা ধরনের নকশা, নানা কাজের ডিজাইন থাকে। তাই দামও একটু বেশি।

আরও পড়ুন

Back to top button