আর্কাইভ

গৌরনদীতে পান ব্যবসায়ীদের ধর্মঘটে পান চাষীরা বিপাকে

সমিতির আহবানে গত চার দিন যাবত পান ক্রয় বন্ধ থাকায় পান নিয়ে বিপাকে পড়েছেন পান চাষীরা। অব্যহত ধর্মঘটের কারনে গতকাল মঙ্গলবার হাটের দিন পান বিক্রি করতে না পারায় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও পান চাষী পরিবারের সদস্যদের ঈদ আনন্দ থেকে বঞ্চিত হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। পান চাষীরা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামণা করেছেন।   
টরকী বন্দর পান ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি হাকিম খান জানান, গত শনিবার (২০ আগষ্ট) রাত আটায়  তাদের ক্রয় কৃত পান পরিবহনের জন্য একটি ট্রাক টরকী বন্দর ট্রাক স্টান্ডে প্রবেশ করে। এ সময় অসাবধানত বশত ট্রাকের সাথে বেধে ডিশ লাইনের তার  ছিড়ে যায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গৌরনদী পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর  ও উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য   ও  ডিশ ব্যবসায়ী  মো. খায়রুল আহসান খান ও তার সহযোগী কাজী মিজান ট্রাক ড্রাইভার ইলিয়াস হোসেনকে মারধর করে। ইলিয়াসকে রক্ষার জন্য টরকী বন্দর পান ব্যবসায়ী সমিতির সাধারন সম্পাদক লিটন মৃধা এগিয়ে আসলে তার ওপর হামলা চালিয়ে তাকেও মারধর করা হয় ।  এ ঘটনার প্রতিবাদ ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে  গত রোববার( ২১ আগষ্ট) সকাল ১১টায়  টরকী বাসস্টান্ডস্থ টরকী বন্দর পান ব্যবসায়ী সমিতির কার্যালয়ে পান ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আব্দুল হাকিম খানের সভাপতিত্বে  এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায়  হমলার  বিচার না হওয়া প্রর্যন্ত ব্যবসায়ীরা অনিদিষ্টকালের জন্য পান ক্রয় বন্ধ ঘোষনা করেন। ধর্মঘটের আহবানের পর থেকে গত চার দিন যাবত ব্যবসায়ীরা পান ক্রয় বন্ধ রাখেন। গতকাল সকালে টরকী বন্দর পানহাটে গিয়ে দেখা যায়, পান হাটে ইজারাদারের লোকজন ও পান চাষীরা পান নিয়ে বসে আছে। কিন্তু কোন ক্রেতা নেই । আগৈলঝাড়া উপজেলার ভাল্লুকসী গ্রামের পান চাষী কাজী মোক্তার হোসেন বলেন, ব্যবসায়ীরা পান না কেনায় মোরা পান লইয়া বিপদে পরছি। পান বেইচ্চা পোলা মাইয়ার লাইগ্যা জামা কাপর কিনমু কিন্তু পান বেচতে না পারায় হেইয়া আর কেনতে পারলাম না। পান ব্যবসায়ী মো. বজলুর রহমান, মোহাম্মদ আলী , আ. রশিদ জানান, টরকী বন্দরে প্রতিহাটে ৫০ থেকে ৬০ লক্ষ টাকার  পান কেনাবেচা হয়। পান ক্রয় বন্ধ করে দেয়ায় পান চাষীদের মাঝে ঈদ আনন্দ নিয়ে অনিশ্চিয়তা দেখা দিয়েছে। ইজারাদার আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদার ধর্মঘট চলায় পান চাষীদের ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, সমস্য সমাধানে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উদ্যোগ গ্রহন করা উচিত।   পান ব্যবসায়ীর ওপর হামলা ও  ধর্মঘট প্রসংঙ্গে পৌর কাউন্সিলর ও যুবলীগ নেতা মো.  খায়রুল আহসান খানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন , ডিশের তার ছেড়াকে কেন্দ্র করে ভুল বোঝা বুঝি ও বাকবিতান্ডা হয়েছিল। তবে হামলার অভিযোগ  সঠিক নয়। এ তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে ধর্মঘট আহবান ঠিক হয়নি। এ প্রসংঙ্গে গৌরনদী পৌর মেয়র ও গৌরনদী উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মো. হারিছুর রহমান বলেন, সোমবার রাতে বিষয়টি শোনার পরে সমাধানের জন্য  উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে। উল্লেখ্য  দক্ষিনাঞ্চলের পানের প্রধান মোকাম টরকী বন্দর । এখানকার পান ব্যবসায়ী সমিতির ক্রয় কৃত পান বিদেশসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সরবারহ করা হয়।

আরও পড়ুন

Back to top button