আর্কাইভ

র‌্যাবের কথিত ৭ সোর্সের বিরুদ্ধে হুমকি ও চাঁদাবাজী মামলা দায়ের করল লিমনের মা

আহমেদ আবু জাফর, ঝালকাঠিঃ র‌্যাবের কথিত বন্দুকযুদ্ধে পা হারানো ঝালকাঠি রাজাপুরের সাতুরিয়া এলাকার মেধাবী কলেজ ছাত্র লিমন হোসেনের অসহায় পরিবারকে এলাকার কথিত র‌্যাব সোর্সদের অব্যাহত হুমকির প্রেক্ষিতে এবার ৭ জনকে আসামী করে মামলা করেছে লিমনের মা হেনোয়ারা বেগম। রবিবার দুপুরে লিমনের মা হেনোয়ারা বেগম রাজাপুর থানায় একটি চাঁদাবাজী মামলা দায়ের করেন।

 রাজাপুর থানা পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে বলে রাজাপুর থানার সেকেন্ড অফিসার হালিম তালুকদার ও মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম রবিবার বিকালে এ মামলা দায়েরের খবর নিশ্চিত করেন। মামলার আসামী হলেন এলাকার কথিত র‌্যাবের সোর্স পরিচয়দানকারি সন্ত্রাসী লিডার ইব্রাহিম, বাদশা, হান্নান, মানিক জমাদ্দার, আলম জমাদ্দার, দিলীপ ও হান্নানের স্ত্রী রাজিয়া বেগম।

 পুলিশ সাতুরিয়ার বাড়ি থেকে রাজিয়া বেগমকে গ্রেফতার করেছে। রাজাপুর থানা পুলিশ সাতুরিয়ার লিমনের বাড়িতে যান এবং লিমনের মায়ের সাথে কথা বলেন। লিমনের মা হেনোয়ারা বেগম জানান, আসামীরা এলাকায় র‌্যাবের সোর্স পরিচয় দিয়ে লিমনের পা হারানো ঘটনা থেকেই বিভিন্ন সময়ে হুমকি দিয়ে আসছিল। গত শুক্রবার সকালে ঝালকাঠি যাওয়ার সময় স্থানীয় ইঁদুরবাড়ির ব্রিজের নিকটে আসামীরা তাকে গতিরোধ করে গালাগাল ও চাঁদাদাবী করে। পরবর্তীতে আসামীরা তাকে মারার জন্য উদ্যত হলে তিনি দৌড়ে পার্শ্ববর্তী তালুকদার বাড়িতে আশ্রয় নেন। তিনি রাজাপুর থানায় খবর দিলে তাৎক্ষনিকভাবে পুলিশ ঘটনাস্থলে যান।

মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা এসআই শফিক বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা একজনকে গ্রেফতার করেছি। অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। গত ২৩ মার্চ র‌্যাবের কথিত বন্দুকযুদ্ধে লিমন গুলিবিদ্ধ হয়ে পা হারান। পা হারানোর পর থেকেই এলাকার কথিত র‌্যাব পরিচয়দানকারি এই চক্রটি লিমনের পরিবারকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল। গত শুক্রবার আবার এই সন্ত্রাসী চক্রটি লিমনের মায়ের কাছে চাঁদাদাবী করেন।

আরও পড়ুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »