আর্কাইভ

আগৈলঝাড়ায় ছাত্র নির্যাতনের ঘটনায় শিক্ষককে জরিমানা

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ বরিশালের আগৈলঝাড়ায় প্রধান শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রকে অমানবিক নির্যাতনের ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক জরিমানা দিয়ে পার পেলেন। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই ছাত্রকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও প্রভাব খাটিয়ে হাসপাতাল থেকে নাম কেটে বাড়ি পাঠানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রমতে, উপজেলার গৈলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র উত্তর শিহিপাশা গ্রামের আলিম শিকদারের ছেলে আল আমিন শিকদার গত রোববার অসুস্থ অবস্থায় স্কুলে আসে। প্রথম ক্লাশের পরে সে আরও অসুস্থ হয়ে পরলে বাড়ি যাবার জন্য রওয়ানা হয়ে শ্রেনী কক্ষ থেকে বের হলে ওই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাহ আলম সরদার বাড়ি যাবার কারণ জানতে চান। আল-আমিন জ্বর ও অসুস্থতার কথা বলার পরেও শিক্ষক শাহ আলম তাকে চড়, থাপ্পর ও লাথি মেরে মাঠে ফেলে দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় আল-আমিনকে অন্য ছাত্ররা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ওই স্কুলের সাবেক প্রধান শিক্ষক বেলায়েত হোসেন আল-আমিনের উপর অমানবিক নির্যাতন হয়েছে দেখে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। গত সোমবার সকালে স্কুল ম্যানেজিং সভাপতি ইউসুফ মোল্লা অভিযুক্ত শিক্ষক ও আহত ছাত্রের অভিভাবক নিয়ে আপোষ বৈঠক করেন। এতে অভিযুক্ত শিক্ষক শাহ আলমকে ছাত্রের চিকিৎসা বাবদ ২৩শ (দুই হাজার তিনশত) টাকা জরিমানা করেন। পরে অসুস্থ থাকা সত্বেও প্রভাব খাটিয়ে শাহ আলম ওই ছাত্রের নাম কাটিয়ে আনেন। এব্যাপারে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক শুকতারুল ইসলাম তামিম জানান, ছাত্র পুরো-পুরি সুস্থ্য হয়নি। তার শরীরে জ্বর ও র্দুবল রয়েছে। অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক শাহ আলম সরদারের ০১৭২৪০৪৮৯১৭ মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে তিনি নিজে কোন কথা না বলে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ইউসুফ মোল্লাকে ফোনে ধরিয়ে দেন। সভাপতি বলেন, জরিমানা নয় ছাত্রের চিকিৎসা খরচ দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »